সরকারি নির্দেশিকাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে বেসরকারি নার্সারি স্কুলে চলছে পঠন-পাঠন

120

কালিয়াগঞ্জ: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে উত্তাল বাংলা সহ অনান্য রাজ্য। আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর নতুন করে স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশিকা দিয়েছেন। কিন্তু নির্দেশিকার উলটো ছবি ধরা পড়ল একটি বেসরকারি নার্সারি স্কুলে।  শনিবার দুপুরে কালিয়াগঞ্জ শহরের পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ে পার্শ্ববর্তী একটি বেসরকারি নার্সারি স্কুলে বহাল তবিয়তে ক্লাস নেওয়ার চিত্র দেখা গেল। স্কুলে ঢুকতেই দেখা গেল স্কুলের শিক্ষিকারা একাধিক কক্ষে শিশুদের ক্লাস নিচ্ছেন। থুতনিতে মাস্ক লাগিয়ে একজন শিক্ষিকা বলেন, ‘শিশুদের ক্লাস নেওয়া হচ্ছে না। অভিভাবকেরা পাঠিয়ে দেয় শিশুদের। ওদের বাড়িতে কেউ দেখাতে পারেনা, তাই ওদের দেখিয়ে দেওয়া হচ্ছে।‘

স্কুলের কর্মরত নমিতা হাজরা বলেন, ‘মিটিং, মিছিল চলছে ওগুলোতে কোনও বাধা নেই। যত বাধা পড়াশোনার ক্ষেত্রে।‘ স্কুলের মালিক আজিমুদ্দিন সরকার বলেন, ‘স্কুলে ১৪ জন শিক্ষিকা রয়েছেন। কিন্তু ৭ জন এসেছেন। আমার স্কুলে গাড়ি, ভ্যান কিছুই চলছে না। দুঃস্থ পরিবারের এক, দুজন শিশু আসে।‘

- Advertisement -

এই বিষয়ে কালিয়াগঞ্জ পুরসভার পুর প্রশাসক শচীন সিংহ রায় বলেন, ‘সরকারি নির্দেশিকা না মেনে চলা বেসরকারি নার্সারি স্কুলে আগামী সোমবারের মধ্যে আমাদের তরফে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করব।‘

উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিদর্শক দীপক কুমার ভক্ত জানান, করোনা বিধি না মেনে এভাবে শিশুদের নিয়ে ক্লাস করা কোনও বেসরকারি নার্সারি স্কুলের উচিত নয়। কোনও শিশুর ক্ষতি হলে তার দায় সংশ্লিষ্ট স্কুল কর্তৃপক্ষকেই নিতে হবে।