নক্ষত্রপুঞ্জের রহস্য ভেদে অগ্রণী বিজ্ঞানী দিনহাটার কনক সাহাকে সংবর্ধনা তাঁর বিদ্যালয়ের

355

দিনহাটা: নক্ষত্রপুঞ্জের রহস্যভেদে অগ্রণী বিজ্ঞানী দিনহাটার কনক সাহাকে ঘিরে তাঁর ছেলেবেলার স্কুল দিনহাটা হাই স্কুলে আজ ছিল সাজো সাজো রব। বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রকে সংবর্ধনা দিতে বিদ্যালয় কক্ষেই এক ছোটো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।

শিক্ষক জয়ন্ত চক্রবর্তী জানান, কনক বর্তমানে পুনের ‘ইন্টার ইউনিভার্সিটি সেন্টার ফর অ্যাসট্রোনমি অ্যান্ড অ্যাসট্রোফিজিক্স’ নামক মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রে বিজ্ঞানী রূপে কাজ করছেন। সেখানে তিনি মহাকাশের নক্ষত্রপুঞ্জ শনাক্তকরণ নিয়ে গবেষণা করছেন এবং তাঁর গবেষণায় ৯৩০ কোটি আলোকবর্ষ দূরের একটি নক্ষত্রপুঞ্জের হদিস মেলে যা সবচাইতে প্রাচীন নক্ষত্রপুঞ্জ।

- Advertisement -

তাঁর এই অন্বেষণ ইতিমধ্যে গোটা বিশ্বে সারা জাগিয়েছে। জয়ন্ত বাবু জানান, আজ কনক দিনহাটায় ফেরায়, আমরা বিদ্যালয়ের তরফে, তাকে সংবর্ধনা জ্ঞাপন করি। এদিন বিদ্যালয় কক্ষেই বিদ্যালয়ের তথা দেশের গর্ব কনক সাহাকে সংবর্ধনা দেন তাঁর প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকরা। এদিন কনক বাবুর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টিআইসি নির্মল চন্দ্র মুন্সী, প্রাক্তন শিক্ষক মনতোষ চক্রবর্তী, বিকাশ দাস, গনেশ চন্দ্র সাহা সহ অন্যান্যরা। এদিন তাঁর হাতে সম্মাননা পত্র তুলে দেওয়ার পাশাপাশি বিদ্যালয়ের ১২৫ বছর পূর্তির একটি স্মারকও তুলে দেওয়া হয়।

এদিকে শৈশবের স্কুলকে অনেকদিন বাদে কাছে পেয়ে আবেগ তাড়িত হয়ে পড়েন কনক বাবুও। পাশাপাশি এদিন তাকে ঘিরে শিক্ষকদের যে ভালোবাসা তাতেও আপ্লুত হন কনক বাবু। কনক বাবু এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে জানান, তিনি যে বিষয় নিয়ে গবেষণা করছেন। তা নিয়ে বর্তমান ছাত্রদের মধ্যে উৎসাহ বাড়াতে, খুব শীঘ্রই তিনি একটি সেমিনার করবেন।