উপকরণঃ মাটন ৭৫০-৮৫০ গ্রাম, টক দই ১০০ গ্রাম, আদাবাটা ২ টেবিল চামচ, রসুনবাটা ২ টেবিল চামচ, পেঁপেবাটা আধ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি ১ কাপ, লঙ্কা গুঁড়ো ১ চা-চামচ, গোলচরিচ গুঁড়ো ১ চা-চামচ, গরমমশলা গুঁড়ো ২ চা-চামচ, মেথি গুঁড়ো আধ চা-চামচ, তেজপাতা ২টো, সরষের তেল ৬ টেবিল চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ, কেওড়ার জল ১ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়ো ২ চা-চামচ, নুন স্বাদ মতো, আলু (বড়) ৪ টুকরো।

প্রণালিঃ প্রথমে মটনটা ধুয়ে একটা বড় পাত্রে রাখতে হবে। এবার মটনে একে একে টক দই, ১ টেবিল চামচ আদাবাটা, ১ টেবিল চামচ রসুনবাটা, লঙ্কা গুঁড়ো, ১ চা-চামচ হলুদ গুঁড়ো, ২ টেবিল চামচ সরষের তেল ও কেওড়ার জল দিয়ে ভাল করে মেখে ৫-৬ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। কড়াইতে তেল গরম করে তাতে আলুর টুকরোগুলো লাল করে ভেজে তুলে নিতে হবে। এবার ওই তেলেই ঘি গরম করে মেথি আর তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে পেঁয়াজ কুচিটা দিন এবং বাদামি করে ভেজে নিন। তারপর একে একে বাকি আদাবাটা, রসুনবাটা, পেঁপে বাটা ও টমেটো কুচি দিয়ে খানিকক্ষণ ভাজতে হবে। তেল ছাড়তে শুরু করলে এর মধ্যে নুন, হলুদ, গরমমশলা গুঁড়ো, গোলচরিচ গুঁড়ো দিয়ে কষিয়ে ২ কাপ জল ঢেলে দিন এবং ঢাকা দিয়ে ৫ মিনিট রাখুন। পরে ঢাকনা খুলে ওর মধ্যে ম্যারিনেট করা মটন দিয়ে মিনিট দশেক কষাতে হবে। কষানো হয়ে গেলে ভাজা আলুগুলো ওর মধ্যে তুলে দিয়ে বাকি জলটা দিয়ে দিন এবং ঢাকনা চাপা দিয়ে আঁচ কমিয়ে রাঁধুন। মটন আর আলু সেদ্ধ হয়ে গেলে আঁচ থেকে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন মটন ডাকবাংলো।