রতুয়ায় কলেজ ছাত্রীর দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

353

চাঁচল, ১৯ অক্টোবর: পাঁচদিন ধরে নিখোঁজ থাকার পর অবশেষে উদ্ধার হল কলেজ ছাত্রীর দেহ। নিখোঁজ ওই কলেজ ছাত্রীর দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে শনিবার উত্তাল হয়ে উঠল রতুয়া। রতুয়া বাহারাল রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে ছাত্রীর পরিবার ও গ্রামবাসীরা। সিআইডি তদন্ত এবং অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে রাস্তায় বসে পড়ে, আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। ছাত্রীর মা, বাবা ও দাদা প্রকাশ্য রাস্তায় আত্মহত্যার হুমকিও দেন। ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তার হবু স্বামী বাপি শেখকে গ্রেফতার করেছে রতুয়া থানার পুলিশ। গত ১৪ অক্টোবর থেকে নিঁখোজ ছিল সামসী কলেজের ওই দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। শুক্রবার রাতে কলেজের কাছেই একটি ধানখেত থেকে তার দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ছাত্রীর মায়ের দাবি হবু স্বামী বাপি ফোন করেই তার মেয়েকে দেখা করার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। কিন্তু সন্ধ্যার পর মেয়ে না আসায় বাপিকে ফোন করলে সে তাঁর মেয়ের সঙ্গে দেখা করেনি বলে জানায়।
সূত্রের খবর, রুকুন্দপুর গ্রানেই এক মহিলার সঙ্গে বাপির ঘনিষ্ট সম্পর্ক ছিল। বাপির বিয়ে স্থির হয়ে যাওয়ার পরে সেই মহিলার পরিবার এবং বাপির পরিবারের মধ্যে বিরোধ বাধে।বিবাদ তুঙ্গে উঠলে মধ্যস্থতা করেন গ্রামবাসীরা। গ্রামের মধ্যে সালিশি সভা বসিয়ে দুই পরিবারের বিবাদ মেটানো হয়। খুনের পেছনে এই ঘটনার কোনও যোগ আছে কিনা খতিয়ে দেখছে রতুয়া থানার পুলিশ।