তোলা দিতে অস্বীকার, কুপিয়ে খুন ট্রাকচালক

142

আলিপুরদুযার: তোলার টাকা দিতে না চাওয়ায় খুন হলেন এক ট্রাক চালক। মাদারিহাট থানার অন্তর্গত রাঙ্গালিবাজনা গ্রামপঞ্চায়েতের  দলদলিয়ার বাসিন্দা ওই ট্রাক চালকের নাম বিপ্লব চম্প্রমারি। বুধবার বীরপাড়া থানার বান্দাপানি চা বাগান এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকেই কুপিয়ে খুন করা হয় তাঁকে। রেতি নদী থেকে বালি বজরি তুলতে গেলে গুন্ডাট্যাক্স নিয়ে বচসার জেরে তাঁকে খুন হতে হয়েছে বলে অভিযোগ মৃতের বাবা বিকাশ চম্প্রমারির। বৃহস্পতিবার তাঁর দেহট ময়নাতদন্তের পর বাড়িতে আনা হলে গ্রামবাসীরা জড়ো হয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। আট মাস আগে বিয়ে হয়েছে ওই যুবকের। বাড়িতে তাঁর স্ত্রী সন্তানসম্ভবা। এদিন গ্রামবাসীরা ছাড়াও অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে সরব হন ট্রাক চালকদের সংগঠনের সদস্যরাও। তাদের অভিযোগ, বীরপাড়া থানার  ভূটান সীমান্তবর্তী এলাকাগুলিতে বছরের পর বছর ধরে তোলাবাজদের দৌরাত্ম্য চলছে। নদী থেকে বালি বজরি তুলতে কিংবা ভূটান থেকে ডলোমাইট নিয়ে আসতেও গুন্ডাট্যাক্স দিতে হয় এলাকার তোলাবাজদের।

প্রসঙ্গত  তোলাবাজির এলাকা দখল কিংবা বখরার টাকা নিয়ে সঙ্ঘর্ষে বারবার উত্তপ্ত হয়েছে বীরপাড়া থানার ভূটান সীমান্তবর্তী এলাকাগুলি। বারবার খুনের ঘটনার তদন্তে উঠে এসেছে নেপথ্যের তোলাবাজি। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে লঙ্কাপাড়ায় গুলির লড়াইয়ে খুন হন জ্যেঠা রাই ও নিরঞ্জন ছেত্রী নামে দুজন। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে লঙ্কাপাড়ায় গুলি করে ও কুপিয়ে খুন করা হয় বরুণ লামা ও ধীরাজ লোহারকে। সেবারও তদন্তে উঠে আসে তোলাবাজির বখরা নিয়ে ঝামেলার বিষয়টি। গত বছরেরই ৩ সেপ্টেম্বর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন লঙ্কাপাড়া চা বাগানের ২০ নং লাইনের বাসিন্দা অরুণ লামা। পুলিশ সূত্রে খবর, বুধবারের ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকও আহত হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

- Advertisement -