ভাইপোর স্ত্রী’র যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে অত্যাচার! অভিযুক্ত কাকাশ্বশুর

301

হেমতাবাদ: ভাইপোর স্ত্রী’কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো ও যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল কাকাশ্বশুরের বিরুদ্ধে। রবিবার গভীর রাতে হেমতাবাদের নওদা গ্রাম পঞ্চায়েতের অনন্তকোটা গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হেমতাবাদ থানার পুলিশ। অভিযুক্তদের কাউকে এখনও গ্রেপ্তার করা যায়নি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সবজি বাগানে ছাগল ঢুকে যাওয়াকে কেন্দ্র করে ঝামেলার সূত্রপাত। ঝামেলা চলাকালীন কাকাশ্বশুর ও তার দুই ছেলে ওই গৃহবধূকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায় বলে অভিযোগ। এমনকি যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। বাঁচাতে গেলে বেধড়ক মার খান নির্যাতিতার স্বামী। তাঁদের দেড় বছরের ছেলেকে উঠোনে ছুড়ে ফেলা হয়। ছেলে ও বৌমাকে বাঁচাতে গিয়ে জখম হন শাশুড়ি। জখম গৃহবধূকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নির্যাতিতার পরিবারের তরফে কাকাশ্বশুর ও তার দুই ছেলের বিরুদ্ধে হেমতাবাদ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত কাকাশ্বশুর তাজমুল হক এবং দুই দেওর কেরামত হোসেন ও মুজাফফর আলি পলাতক। সোমবার রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের বেডে শুয়ে নির্যাতিতা গৃহবধূ বলেন, ‘সবজি বাগানে ছাগল ঢুকে গিয়েছিল। সেজন্য কাকাশ্বশুর আর দুই দেওর মিলে আমার ওপর অত্যাচার চালিয়েছে।‘

- Advertisement -

হেমতাবাদ থানা সূত্রের খবর, নির্যাতিতার পরিবারের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি কাকাশ্বশুরের পরিবারের তরফেও পালটা অভিযোগ দায়ের হয়েছে। আইসি জয়ন্ত রায় বলেন, ‘অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।‘