একই জায়গায় বারবার আগুন, দমকলকে হুমকি

105

মেখলিগঞ্জ: পরপর একই জায়গায় আগুন লাগে মেখলিগঞ্জ শহরে। ঘটনার পর দমকলবাহিনী আগুন নেভাতে গেলে অজানা নম্বর থেকে ফোন করে এক প্রকার হুমকি দেওয়া হয় দমকল কেন্দ্রে। মঙ্গলবার দুপুরে মেখলিগঞ্জ দমকল কেন্দ্রে এমনটাই দাবি করলেন দমকল কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক রহমান চৌধুরী। তিনি জানান, অজানা নম্বর থেকে হুঁশিয়ারি দিয়ে কেউ একজন বলেন আপনারা আগুন নেভাতে এসে ভালো করেন নি। এরপর আপনাদের বারবার এখানে আসতে হবে। রহস্যজনক ফোনের সন্ধান পেতে পুলিশের দারস্থ মেখলিগঞ্জ দমকল কেন্দ্রের ওসি রহমান চৌধুরী।

মেখলিগঞ্জ ব্লকে একটি মাত্র দমকল কেন্দ্র মেখলিগঞ্জ শহরে অবস্থিত। দমকল কেন্দ্রের আধিকারিক জানান, এই দমকল কেন্দ্রে যা স্টাফ থাকার কথা তার তিন ভাগের এক ভাগ রয়েছে। তারমধ্যে চারজন স্টাফ করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আইসোলেশনে রয়েছেন। এই অবস্থায় কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে কারও খরের গাদায়, আবার কারও ঘরে আগুন লাগাচ্ছে। সেই আগুন নেভাতে গেলেও আবার দমকল কেন্দ্রে ফোন করে এক প্রকার হুমকি। গত বুধবার সন্ধ্যায় মেখলিগঞ্জের চৌরঙ্গীতে খরের গাদায় আগুন লাগে। দমকলের কর্মীরা আগুন নেভাতে যান। কিন্তু রহস্যজনকভাবে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে কেউ একজন অজানা নম্বর থেকে ফোন করে বলছেন আপনারা গতকাল আগুন নেভাতে এসে ঠিক করেননি। আপনাদের আবার আসতে হবে, প্রস্তুত থাকবেন। যেমন হুঁশিয়ারি ঠিক তেমনই নির্দিষ্ট এলাকায় ফের আগুন লাগায়। একই জায়গার দুটি ভিন্ন বাড়ির খরের গাদায় ও ঘরে শনিবার ও রবিবার রাতে আগুন লাগে।

- Advertisement -

এই ঘটনায় তাজ্জব হয়ে যান দমকল কেন্দ্রের আধিকারিক রহমান চৌধুরী। তাঁর প্রাথমিক অনুমান কেউ ইচ্ছাকৃত আগুন লাগাচ্ছে। তিনি জানান, আমরা পুলিশের দারস্থ হয়েছি। এই পরিস্থিতিতে কেউ যদি ইচ্ছাকৃত আগুন লাগিয়ে সমস্যা সৃষ্টি করে তাহলে কিভাবে চলবে। যেদিন অজানা নম্বর থেকে ফোনে হুঁশিয়ারি দিয়েছিল সেদিনই মেখলিগঞ্জ থানার লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এরকম অবাঞ্ছিত ফোন আসে মাঝে মধ্যে। প্রথম পর্যায়ে গুরুত্ব না দিলেও ফোনের পর দু’দিন পরপর আগুন লাগার খবরে মেখলিগঞ্জ থানার ওসিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখার কথা জানিয়েছি। রহস্যজনকভাবে কে ফোন করছে তা খোঁজ পেলে আগুন লাগানোর কারণ জানা যাবে। মেখলিগঞ্জ থানার এক আধিকারিক জানান, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।