ভোপাল, ১২ ফেব্রুয়ারিঃ রবিবার ভোপালের আপার লেকে ভেসে ওঠে নীলোত্‍পল সরকার নামে বছর ২৭-এর এক যুবকের দেহ। নিলোত্পলের হাতে বাঁধা ছিল নিজের নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর লেখা একটি ট্যাগ। যাতে তদন্তে নেমে কোনো অসুবিধায় পড়তে না হয় পুলিশের। খুব প্ল্যান করে আত্মহত্যা করেছে বলে মনে করছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, ভোপালের সিএসআইআর-এএমপিআরাই ভোপালে ন্যানোটেকনোলজির রাসার্চ স্কলার ছিলেন নীলোত্‍পল সরকার। ভোপালের সাকেত নগরে একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন তিনি। বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি সুইসাইড নোটও।

তাতে লেখা রয়েছে মহাকালী তাঁকে স্বপ্নে দেখা দিয়ে বলেছেন, এজন্মে সে প্রেম খুঁজে পেলেও তাকে প্রেম নিবেদন করার পরেই মৃত্যু হবে নীলোত্‍পলের। এমনকী তাঁর প্রেম বুঝতে পারলেই মৃত্যু হবে তাঁর সঙ্গীর। বিয়ে করতে নিতে হবে পুণর্জন্ম। নইলে বিয়ের সঙ্গে সঙ্গেই মৃত্যু হবে তাঁর সঙ্গীর। সেই স্বপ্নাদেশ পাওয়ার পরই পুণর্জন্মের আশায় ও তাঁর সঙ্গীকে বাঁচাতে আত্মহনন করেছেন নীলোত্‍পল।

এছাড়া বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে নীলোত্পল নিজের ঘরের দেওয়ালে লিখেছেন, ‘ডার্ক ম্যাটার বুঝতে গেলে, বুঝতে হবে শিবকে। ব্ল্যাক হোল বুঝতে গেলে, বুঝতে হবে কালীকে। আর বিগ ব্যাং থিয়োরিকে বুঝতে গেলে বুঝতে হবে ওম এর ভাষা।’

জানা গিয়েছে, নীলোত্‍পলের বাবা ভেল-এর জিএম। তিনি হরিদ্বারে থাকেন। মা চিকিত্‍সক। নীলোত্‍পলের বোন অ্যামিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন। ছোটবেলা থেকেই নাকি তিনি একটু বেশিই পূজাঅর্চণা করতেন। যে বাড়িটিতে নীলোত্‍পল ভাড়া থাকতেন তার মালিক ফুলেশ্বর সাহু জানিয়েছেন গত দু’দিন ধরে কোনও খোঁজ মিলছিল না তাঁর। তিনিই প্রথম থানায় গিয়ে নিখোঁজ ডায়েরি করেন। তারপরেই তল্লাশি শুরু করে পুলিশ।
সুইসাইড নোট থেকে পুলিশ জানতে পেরেছে, মহাকালীর স্বপ্নাদেশ পাওয়ার পর গুয়াহাটির কামাক্ষ্যা মন্দিরে গিয়েছিলেন তিনি। সমকামী ছিলেন নীলোত্‍পল, তবে সেবিষয়ে পরিবারকে কিছুই জানায়নি সে।