স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পরিযায়ীদের টেস্ট করাতে আপত্তি গ্রামবাসীদের, সুর মিলিয়েছেন প্রধান 

268

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভিন রাজ্য থেকে আসা পরিযায়ী শ্রমিকদের করোনা উপসর্গ সংক্রান্ত প্রাথমিক টেস্ট করতে দিতে নারাজ বাসিন্দারা। গ্রামবাসীদের দাবিকে সমর্থন জানিয়েছেন গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান। গত রবিবার দিল্লির গাজিয়াবাদ থেকে আসা ৪৫ জন পরিযায়ী শ্রমিক টেস্ট করতে আসলে গ্রামবাসীরা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের গেট আটকে দিয়ে বিক্ষোভ দেখান। পরিযায়ী শ্রমিকদের ফিরিয়ে দেওয়া হয়। প্রতিদিন করোনার প্রাথমিক টেস্ট করানোর জন্য শ্রমিকদের আসা যাওয়ার কারনে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন এলাকার বাসিন্দারা। রবিবার স্বাস্থ্যকেন্দ্রের গেটে তালা লাগানোর পাশাপাশি পোস্টার লাগিয়ে দেন গ্রামবাসীরা।

স্থানীয় গ্রামবাসী বুরন সরকার জানান, ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে করোনা টেস্টের কোনো পরিকাঠামো নেই। অথচ ভিন রাজ্য থেকে প্রতিদিন শ্রমিকেরা এখানে আসছে। আমাদের দাবি এলাকার এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পরিযায়ী শ্রমিকদের টেস্ট করা যাবে না। এই ধরনের টেস্ট হওয়ার জন্য আমরা আতঙ্কিত। স্থানীয় বাসিন্দা তথা মহারাজা হাট ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক উত্তম চ্যাটার্জী জানান, রায়গঞ্জ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি গ্রামের মাঝখানে থাকায় পরিযায়ী শ্রমিকদের যাতায়াতের কারণে আতঙ্কিত এলাকার মানুষ। তাদের দাবি লোকালয়ের বাইরে শ্রমিকদের টেস্ট করানো হোক।

- Advertisement -

গ্রামবাসীদের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন ৬ নম্বর রামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অমল সরকার। তিনি বলেন, দিল্লী, মুম্বই থেকে এখানে পরীক্ষার জন্য লোক চলে আসছে। এখানে সঠিক পরীক্ষা হয় না। শুধুমাত্র থার্মাল স্কিনিং হয়। এই পরীক্ষায় করোনা ধরা পড়ে না। তাই আমাদের দাবি, যেখানে ক্যাম্প আছে সেখানে নিয়ে গিয়ে যেন পরীক্ষা করা হয়। বাইরে থেকে লোকজন গ্রামে আসায় আমরা সবাই আতঙ্কিত। ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক আলতাস আলি জানান, গোটা বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। সেখান থেকে নির্দেশ আসার পরই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।