পাকা রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ, কাজ বন্ধ করলেন বাসিন্দারা

415

তুফানগঞ্জ: তুফানগঞ্জ-১ ব্লকের অন্দরানফুলবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের যমেরডাঙ্গা এলাকায় পাকা রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠায় কাজ বন্ধ করে দিলেন স্থানীয়রা। উত্তরবঙ্গে প্রথম অন্দরানফুলবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতে ১ কোটি ৬৮ লক্ষ ৮৯৩ টাকায় প্রায় ৪ কিমি ন্যানো প্রযুক্তির রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল ২০১৯ সালের ১৮ অক্টোবর। কাজের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছিল এক বছর। ভারত সরকারের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের অর্থানুকূল্যে এই রাস্তাটি তৈরি হবে। ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কের বলরামপুর চৌপথী থেকে যমেরডাঙ্গা পর্যন্ত রাস্তাটি ন্যানো প্রযুক্তিতে পাকা করা হবে।

এই রাস্তাটির প্রাথমিক প্রক্রিয়াগুলি শেষ হলে শুক্রবার থেকে সিডিউল মেনে ২০ এমএমের জায়গায় ৩৫ এমএম পুরু পিচের আস্তরণ করা হচ্ছে বলে ঠিকাদারি সংস্থার মালিক পুলক সাহা জানান। তিনি আরও বলেন, শনিবার যমেরডাঙ্গা এলাকায় স্থানীয় লোকজন পিচের পুরু আস্তরণ ৭৫ এমএমের দাবিতে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দেন। আমরা নিয়ম মেনেই কাজ করছি। এলাকাবাসী সরকারি সিডিউল দেখতে চেয়েছেন। সোমবার অফিস খোলা থাকলে তাঁদের সিডিউল দেখানো হবে। ন্যানো প্রযুক্তির রাস্তার কাজ উত্তরবঙ্গে এই প্রথম পরীক্ষামূলকভাবে হচ্ছে। স্থানীয়রা প্রতিমুহূর্তে অসহযোগিতা করছেন। এটা কাম্য নয়।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দা সুব্রত সাহা বলেন, রাস্তাটি প্রথমের দিকে পিচের আস্তরণ অনেকটাই পুরু দিয়েছে। কিন্তু যমেরডাঙ্গা এলাকায় পিচের আস্তরণ কম দেওয়া হচ্ছে। আমারা সরকারি নির্দেশিকা মেনে কাজ করতে বলেছি। কাজের অনিয়ম ধরা পড়ায় আমরা এলাকাবাসী মিলে কাজ বন্ধ করে দিয়েছি। অন্দরানফুলবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ধরনীকান্ত বর্মণ বলেন, সরকারি নির্দেশিকা মেনেই ন্যানো প্রযুক্তির রাস্তার কাজ হচ্ছিল। কিন্তু এলাকাবাসী সিডিউল দেখতে চেয়েছেন। ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া ন্যানো প্রযুক্তির কাজ কজন বোঝেন। অকারণে রাস্তার কাজ আটকে দেওয়া ঠিক হয়নি।

সংশ্লিষ্ট কাজের সাব অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার অশোক বর্মন বলেন, শনিবার যমেরডাঙ্গা এলাকায় স্থানীয় লোকজন ন্যানো প্রযুক্তির রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ এনে আটকে দেন। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।