দাঁতালের আতঙ্কে ঘুম উড়েছে নেপাল সীমান্তের বাসিন্দাদের

109

কিশনগঞ্জ: ফের দাঁতালের আতঙ্কে ঘুম উড়ল নেপাল সীমান্তবর্তী গ্রামের বাসিন্দাদের। শুক্রবার রাত থেকে কিশনগঞ্জ জেলার নেপাল সীমান্তের দিঘলব্যাংক ব্লকের ধনতোলা গ্রাম পঞ্চায়েতের বিহারতোলা গ্রামে হাতির পাল তাণ্ডব চালায়। ওই গ্রামের বাবলু হাসদা, টেনা মুর্মু, শ্যাম বেশরাদের কুঁড়েঘর ভেঙে তছনছ করে। আর ঘরে রাখা ধান, ভুট্টা সাবাড় করে দেয়। স্থানীয় সূত্রে খবর, গত শুক্রবার রাত ১১টা নাগাদ ৪টি হাতি প্রায় ৫ঘন্টা গ্রামে উৎপাত চালিয়ে শনিবার ভোরবেলা নেপালে ফিরে যায়।

বৃহস্পতিবার রাতে নেপালের থেকে আসা হাতির দল ধনতোলা পঞ্চায়েতের পাঁচগাছি গ্রামে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিগত দুই সপ্তাহের মধ্যেই দিঘলব্যাংক এলাকায় এই নিয়ে ৪বার হাতির দল নেপালের জঙ্গল থেকে এসেছে। সীমান্তবর্তী গ্রাম সুরিভিটটা, মুলাবাড়ী, পাঁচগাছি, বিহারতোলা গ্রামের ৫-৬টি মাটির ঘর ভেঙ্গে, সঞ্চিত খাবার খেয়ে, সবকিছুই তছনছ করে দেয়। সূত্রে জানাগেছে বারবার আসা নেপালি হাতির দলে ৪-৬টি হাতি থাকে।

- Advertisement -

অভিযোগ প্রায় প্রতিবছর শীতের সময় নেপালি হাতির অনুপ্রবেশ ও ধ্বংসলীলা নিয়ে বনদপ্তর বা জেলা প্রশাসন কোন বিশেষ ধরনের পদক্ষেপ নেয় না। শুধুমাত্র বনদপ্তর ও ব্লকস্তরের কর্মীরা হাতির হানায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের নাম লিখে চলে যান। কিশনগঞ্জের বনদপ্তরের রেঞ্জার উমা শঙ্কর দুবে জানান, বনকর্মীদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।