ব্যবসায় ক্ষতি হলেও মানুষের সেবায় এগিয়ে এলেন রিসর্ট মালিকরা

60

চালসা: করোনার জন্য কার্যত লকডাউনে মুখ থুবড়ে পড়েছে পর্যটন ব্যবসা। রিসর্ট খোলা থাকলেও গাড়ি বন্ধের জন্য পর্যটকরা আসছেন না। ফলে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন রিসর্ট ব্যবসায়ীরা। তবে ব্যবসায় ক্ষতি হলেও এই সংকটকালে মানুষের সেবায় এগিয়ে এলেন রিসর্ট মালিকরা। শনিবার চালসায় রিসর্ট মালিকদের সংগঠন গরুমার টুরিজম ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েসনের তরফে অ্যাম্বুল্যান্স চালক সহ চারটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার হাতে পিপিই, মাস্ক, স্যানিটাইজার, খাদ্যসামগ্রী ও শংসাপত্র তুলে দেওয়া হয়। এদিন পদ্মশ্রী করিমুল হকের হাত দিয়ে সেসব সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।

এদিন মঙ্গলবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালের চার অ্যাম্বুল্যান্স চালককে পিপিই, স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস দেওয়া হয়। মেটেলি রেড ভলান্টিয়ার, মেটেলি নারী সংগঠনের প্রতিনিধিদের পিপিই, মাস্ক, স্যানিটাইজার ও গ্লাভস দেওয়া হয়। করোনা আক্রান্ত পরিবারের সদস্যদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিচ্ছে চালসা আলোর দিশা ও লেটস সো হিউম্যানিটি সংস্থা। সাংবাদিকদেরও সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। সংগঠনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন পদ্মশ্রী করিমুল হক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি তজমল হক, সম্পাদক দেবকমল মিশ্র, কোষাধ্যক্ষ জীবন ভৌমিক, শেখ জিয়াউর রহমান, পরিমল রাউথ, সমীরণ ভট্টাচার্য সহ অনেকে।

- Advertisement -