প্রথম- সৌগত দাস (পূর্ব মেদিনীপুর মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠ)। প্রাপ্ত নম্বর – ৬৯৪

দ্বিতীয়-  শ্রেয়সী পাল (আলিপুরদুয়ার ফালাকাটা গার্লস হাইস্কুল) প্রাপ্ত নম্বর-  দেবস্মিতা সাহা (ইলাদেবী গার্লস হাইস্কুল)। প্রাপ্ত নম্বর- ৬৯১

তৃতীয়- ক্যামেলিয়া  রায় (রায়গঞ্জ গার্লস হাইস্কল),  ব্রতীন মণ্ডল (নদীয়া)। প্রাপ্ত নম্বর-৬৮৯

চতুর্থ-  অরিত্র সাহা  (আলিপুরদুয়ার বারোবিশা হাইস্কুল)। প্রাপ্ত নম্বর- ৬৮৭

পঞ্চম- সুকল্প দে (হুগলি ), রুমনা সুলতানা ( কান্দি)।প্রাপ্ত নম্বর – ৬৮৬

ষষ্ঠ- সোহম দে  (গোঘাট) , সাবর্ণী চ্যাটার্জি (রামপুরহাট), সাহিত্যিকা ঘোষ (বর্ধমান), সুপর্ণা সাহু (বর্ধমান), অঙ্কন চক্রবর্তী (হাওড়া)। প্রাপ্ত নম্বর- ৬৮৫

সপ্তম- গায়ত্রী মোদক  (কোচবিহার ইলাদেবী গার্লস হাইস্কুল), অনীক চক্রবর্তী (ঘাটাল), সপ্তর্ষি দত্ত (নদীয়া)।  প্রাপ্ত নম্বর- ৬৮৪

অষ্টম-  সাহানওয়াজ  আলম (কোচবিহার শীতলকুচি হাইস্কুল),  সায়ন্তন বসাক ( দক্ষিণ দিনাজপুর গঙ্গারামপুর হাইস্কুল), অর্কপ্রভ সাহানা (বাঁকুড়া), কৌশিক সাঁতরা (বাঁকুড়া), সুদীপ্তা ধবল (বাঁকুড়া), সায়ন্তন দত্ত (বাঁকুড়া), পৃথ্বীশ কর্মকার (বাঁকুড়া), দেবলীনা দাস (আরামবাগ), অয়ন্তিকা মাঝি (বর্ধমান), পুস্কর ঘোষ (বর্ধমান, কাটোয়া), সেমন্তী চক্রবর্তী ( দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা)। প্রাপ্ত নম্বর- ৬৮৩

নবম- জয়েশ রায় (আলিপুরদুয়ার শিলবাড়িহাট হাইস্কুল), সৌগত পাণ্ডা (বাঁকুড়া), শুভদ্বীপ কুণ্ডু (বাঁকুড়া),  সৌকর্য বিশ্বাস (বীরভূম),  প্রত্যুষ করণ (কাঁথি),  অরুণিমা ত্রিপাঠী  (পূর্ব মেদিনীপুর), অভিনন্দন জানা  ও ঐকিক মাঝি (পূর্ব মেদিনীপুর)। প্রাপ্ত নম্বর – ৬৮২

দশম- সঞ্চারী চক্রবর্তী (রায়গঞ্জ গার্লস হাইস্কুল), সায়ন্তিকা দাস , সৌধ হাজরা , সাখী কুণ্ডু, রিমা চৌধুরী, সৌমদীপ দত্ত, অরিত্র মহড়া, সৌমদীপ ঘোষ, সায়ন্তিকা রায়, শুভদ্বীপ মাঝি , সহেলি রায়, দেবমাল্য সাহা, প্রত্যাশা মজুমদার, অঙ্কিতা কুণ্ডু, সোহম দাস। নম্বর ৬৮১.

সাফল্যের হার সবচেয়ে বেশি পূর্ব মেদিনীপুরে। কলকাতা দ্বিতীয় স্থানে। তৃতীয় স্থানে পশ্চিম মেদিনীপুর।

মোট পরীক্ষার্থী– ১০ লক্ষ ৫০ হাজার ৩৯৭ জন।

পাশের হার ৮৬.০৭%

ছবি : মাধ্যমিকে সম্ভাব্য চতুর্থ অরিত্র সাহা।