চেনা ছন্দে ফিরছে হোম স্টে, পর্যটক রাখার সিদ্ধান্ত মালিকদের

183

মালবাজার: করোনার ঢেউ আছড়ে পড়ার পর পর্যটকদের আনাগোনা কার্যত তলানিতে। করোনা সংক্রমণ রুখতে পাহাড়ি এলাকাতেও পর্যটকদের আনাগোনা নিষিদ্ধ রাখা হয়েছিল। তবে, সম্প্রতি সংক্রামণ কিছুটা কমে যাওয়ায় সামসিং কুমাই হোম স্টে ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের তরফে বৈঠক করা হয়। সেই বৈঠকে পর্যটকদের রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

করোনা সংক্রমনের প্রভাব পর্যটনেও প্রভাব পড়েছে। করোনার সংক্রামণ কমতেই আবার পর্যটকদের আনাগোনা বাড়বে বলে আশায় রয়েছেন প্রত্যেকে। এদিকে ১ জুলাই থেকে ৫০ শতাংশ বাস চলাচলেও ছাড়পত্র মিলেছে। ফলে আশার আলো দেখছেন হোম স্টেগুলির মালিক। সামসিং কুমাই হোম স্টে ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের আওতায় ৩৮টি হোম স্টে আছে। সংগঠনের বক্তব্য, যেহেতু হোম স্টে’র সাথে স্থানীয় পরিবারগুলিও যুক্ত। তাই করোনা ঢেউয়ের সময় বাড়তি গুরুত্ব দিয়ে পর্যটক রাখা স্থানীয়ভাবেই বন্ধ রাখা হয়েছিল। বর্তমানে ৫০ শতাংশ পর্যটক রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। টিকাকরণেও জোর দেওয়া হবে। হোম স্টে পরিচালকদের বক্তব্য, পর্যটন ব্যবসা বন্ধ থাকার জন্য আর্থিকভাবে সকলেই সমস্যায় পড়েছেন।

- Advertisement -

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কর্তব্য প্রধান বলেন, ‘নিয়মবিধি মেনে আমরা পয়লা জুলাই থেকে পর্যটক রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।‘ মাল শহরের বাসিন্দা তথা পর্যটন টুর পরিচালনার সাথে যুক্ত রাজেন প্রধান বলেন, ‘আমাদের সকলের ইচ্ছে করোনা প্রতিরোধের নিয়ম বিধি মেনেই পর্যটন শিল্প গতি পাক। পাহাড় এবং সমতলের অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য পর্যটকেরাও উপভোগ করতে পারবেন। হোম স্টেগুলি ফের চালু হলে পর্যটন সার্কিটেও সুবিধা হবে।‘