ভোটের বাজারে ছড়ার ঝড় বইছে দেওয়ালে

112

রায়গঞ্জ: কোথাও লেখা ‘জাত ভেদাভেদ নিপাত যাক/ উন্নয়নের ভরসা থাক/ দিচ্ছে বাংলা জয়ধ্বনি/ ফিরছে আবার দিদিমণি‘ কোথাও আবার ‘ফুল বদল না দিন বদল/ ধর্মস্থান না কর্মস্থান/ লুটে খাওয়া না খেটে খাওয়া/ বোমা বন্দুক না নিয়োগপত্র”। কোনও দেওয়ালে চোখে পড়ছে বিজেপির প্রচার ‘হাতেও নয়/ কাস্তেতে নয়/ ভোট নয় জোড়াফুলে/ মা ভাই বোনেরা বেঁধেছে জোট/ সব ভোট পদ্মফুলে।‘ এভাবেই ছড়ার ঝড় বইছে শহরের দেওয়ালে দেওয়ালে। বিজেপি ও জোটের দেওয়ালে লিখনে ফুটে উঠেছে সারদা থেকে টেট সব কিছুরই প্রতিফলন। বাড়ির দেওয়াল এবং ফেসবুকের ওয়ালে সর্বত্র জ্বলজ্বল করছে এমনই সব ভোট লিখন। এসব লিখন নজর কেড়েছে রায়গঞ্জ জুড়ে।

ভোটের বাজারে ছড়ার ঝড় বইছে দেওয়ালে| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

- Advertisement -

রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে এবার মূল লড়াই  সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্ত, তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়াল এবং বিজেপি প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যাণীর মধ্যে। তাই ভোটের প্রচারে প্রার্থীদের সমর্থনে রকমারি ছড়ার মাধ্যমেই জমে  উঠেছে প্রচার। দেওয়াল লিখনে নানা ছড়ার মাধ্যমে প্রচারে বৈচিত্র্য আনছে সংযুক্ত মোর্চা, তৃণমূল ও বিজেপি। রায়গঞ্জ পুরসভার চেয়ারম্যান সন্দীপ বিশ্বাসের ওয়ার্ডের একটি দেওয়ালে দেখা গেল,  ‘দিদি দিল যুবশ্রী, রুপশ্রী/ বিশ্ব সেরা হল দিদির দেওয়া কন্যাশ্রী।‘ ছড়ার লড়াইয়ে পিছিয়ে নেই বিজেপি। দেওয়ালে ফুটে উঠেছে, ‘ঘাসফুল ছাগলে খায়/ পদ্ম লাগে দেবীর পায়।‘

সিপিএমের উত্তর দিনাজপুর জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য উত্তম পাল জানান, এমন ছড়ার মাধ্যমে খুব সহজেই মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়। ছড়ার মাধ্যমে তৃণমূল ও বিজেপি শাসনের অপকর্ম তুলে ধরা হয়েছে।

বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য শংকর চক্রবর্তী বলেন, ‘দেওয়ালে দেওয়ালে এমন ছড়া লেখালেখি তো বঙ্গ সংস্কৃতির অঙ্গ। দীর্ঘদিন ধরে এই ছড়া লেখা হচ্ছে।‘

রায়গঞ্জ বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর অরিন্দম সরকার বলেন, ‘সাধারণ মানুষের কাছে দলের বার্তা পৌঁছে দিতে ছড়া লিখেছেন কর্মীরা। দেওয়ালের পাশাপাশি ফেসবুকের ওয়াল ভরিয়ে তোলা হয়েছে।‘