মডেল কিষান মান্ডি যাওয়ার পথে বিপজ্জনক দুই সেতু

466

ফালাকাটা : ফালাকাটার মডেল কিষান মান্ডি লাগোয়া দুই বিপজ্জনক সেতু নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে ব্যবসায়ী, কৃষক ও স্থানীয়দের। কিষান মান্ডির ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে ফালাকাটা-সোনাপুর জাতীয় সড়কে আসার জন্য দোলং নদীর উপর বহু পুরোনো পাকা সেতুটি ইতিমধ্যে কয়েক জায়গায় ভেঙে গিয়েছে। কিষান মান্ডি তৈরির অনেক আগে পারঙ্গেরপার, রাইচেঙ্গা এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য সেতুটি তৈরি হয়। অভিযোগ, কিষান মান্ডি চালুর সাড়ে তিন বছরেও সেতু সংস্কারের কাজ শুরু হয়নি। বিপজ্জনক এই সেতু দিয়ে বহন ক্ষমতার বেশি ভারী যানবাহন চলাচল করছে। কারন, এই সেতু হয়েই পণ্যবাহী লরিগুলি কিষান মান্ডিতে যাওয়া-আসা করে। কিষান মান্ডির পশ্চিম দিকে রাইচেঙ্গা ও পারঙ্গেরপার গ্রামের মাঝেও রয়েছে দুর্বল একটি কাঠের সেতু। ব্যবসায়ীদের দাবি,কিষান মান্ডিতে যাওয়া-আসার রাস্তা ভালো হলেও দুটি বিপজ্জনক সেতুর কারনে দুর্ঘটনার আশঙ্কা বাড়ছে। আলিপুরদুয়ার জেলা আরএমসি-র আধিকারিক সুব্রত কুমার দে বলেন, ‘নতুন করে ব্রিজ তৈরির চেষ্টা চলছে। দ্রুত এ নিয়ে টেন্ডার হবে।’

২০১৫ সালের ১ এপ্রিল থেকে ফালাকাটার কিষান মান্ডি চালু হয়। আরএমসি পরিচালিত ২২টি স্টল রয়েছে এখানে। আরও ১০০টি স্টল তৈরি হয়েছে। দেশ-বিদেশের ব্যবসায়ীরা এখানে আসেন পণ্য কিনতে। আলিপুরদুয়ার সহ কোচবিহার ও জলপাইগুড়ি জেলার কৃষকরা তাঁদের ফসল পাইকারি দরে বিক্রি করেন এই বাজারে। পরিসেবার নিরিখে ফালাকাটার এই কিষান মান্ডি গোটা রাজ্যের মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে। সরকারিভাবে একে ‘মডেল কৃষক বাজার’ও বলা হয়। অথচ এই কিষান মান্ডিতে যাওয়া-আসার দু’দিকের দুটি সেতু বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে। এজন্য কৃষকদের পাশাপাশি বাইরে থেকে আসা পাইকাররাও পণ্যবাহী গাড়ি নিয়ে বাজারে যেতে আসতে সমস্যায় পড়েন।

- Advertisement -

ফালাকাটা-সোনাপুর জাতীয় সড়কের মিল রোড রেল ওভারব্রিজ ও ফালাকাটা-২ গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসের মাঝামাঝি স্থানে অবস্থিত কিষান মান্ডি। জাতীয় সড়ক থেকে উত্তরদিকে কয়েকশো মিটার দূরেই এই বাজার। কিন্তু জাতীয় সড়কের পাশ বরাবর পূর্ব-পশ্চিম দিকে বয়ে যাওয়া দোলং নদীতে রয়েছে অনেক আগের তৈরি একটি পাকা সেতু৷ পণ্যবাহী লরিগুলি খুব সতর্কভাবে এই সেতুর উপর দিয়ে চলাচল করে। গাড়ির ধাক্কায় ইতিমধ্যে সেতুর দুদিকের রেলিং কিছুটা ভেঙেছে। ১০ মেট্রিকটন ধারণ ক্ষমতার বেশি যানবাহন চলাচল নিষেধ করে আলিপুরদুয়ার জেলা প্রশাসন ইতিমধ্যে সেতুর সামনে নোটিশ লাগিয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী রতন রায় বলেন, ‘ওই বেহাল সেতুর জন্য পণ্যবাহী লরি চলাচলে দারুণ সমস্যা হয়। যে কোনো সময় এখানে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।’ এখানে নতুন সেতু তৈরির দাবি জানান জয়গাঁর পাইকার কৈলাশ সাউ সহ বাইরের পাইকাররা।

এদিকে কিষান মান্ডি থেকে ৫০০ মিটার দূরে রাইচেঙ্গা ও পারঙ্গেরপার গ্রামের মাঝেও দোলং নদীতে থাকা বিপজ্জনক একটি কাঠের সেতুর জন্য জমির ফসল কিষান মান্ডিতে নিয়ে আসতে বিপাকে পড়ছেন কৃষকরা। স্থানীয় কৃষক রাম বিশ্বাস বলেন, ‘কয়েকবার এই কাঠের সেতুতে দুর্ঘটনাও হয়েছে। রাস্তাটি পাকা হলেও সেতুটি বেহাল থাকায় সমস্যা হচ্ছে।’ আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ ফালাকাটার সন্তোষ বর্মন বলেন, ‘এই কাঠের সেতুটি পাকা করার প্রস্তাব উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরে পাঠানো রয়েছে। তবে জাতীয় সড়কের সঙ্গে যে বিপজ্জনক পাকা সেতুটি রয়েছে সেটি তৈরি করবে আরএমসি। কেন নতুন সেতুর কাজ শুরু হচ্ছে না তা আমিও জেলা প্রশাসনের কাছে জানতে চেয়েছি।’

ছবি :ফালাকাটা কিষান মান্ডি লাগোয়া বিপজ্জনক সেতু।

তথ্য ও ছবি : সুভাষ বর্মন