জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনায় জখম মহিলা

741

বর্ধমান, ৩০ নভেম্বরঃ পথ দুর্ঘটনায় জখম হলেন এক মহিলা। সোমবার পূর্ব বর্ধমানের মেমারির পালসিটে ২ নম্বর জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনাটি ঘটে। পরে দুই যুবক তাঁকে উদ্ধার করে বর্ধমানের ‘অনাময়’ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে।

জানা গিয়েছে, এদিন সিদ্দিকা বেগম তাঁর ভাগ্না সাইফুর রহমানের সঙ্গে মোটরবাইকে চেপে বর্ধমানের পিরবাহারমে বিয়ে বাড়িতে যোগ দিতে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় বৃদ্ধার মাথা ফেঁটে যায়। কিন্তু, তিনি রাস্তার পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিলেন। কিন্তু, কেউ এগিয়ে আসেননি।

- Advertisement -

পরে সন্দীপ বসু ও সৌরভ হালদার নামে দুই যুবক বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান। মহিলাকে হাসপাতালে ভর্তি করে আহতের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়। সিদ্দিকা বেগমের পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে পৌঁছে, সবকিছু জানার পর দুই মানবিক যুবকের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন।

সাইফুর রহমান বলেন, মোটরবাইকের চাকা রাস্তার গর্তে পরে গেলে ঝাঁকুনিতে তাঁর মাসি বাইক থেকে ছিটকে রাস্তায় পড়ে গেলে মাথা ফেঁটে যায়। মাসির শরীরের আরও বেশকিছু জায়গাতেও অঘাত লাগে। রাস্তায় পড়ে মাসি যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছিল। হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার জন্য কেউ গাড়ি দাঁড় করিয়ে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি। পরে ওই দুই যুবক তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

সন্দীপ বাবু বলেন, তাঁরা চারচাকা গাড়িতে চড়ে বর্ধমান যাচ্ছিলেন। জাতীয় সড়কে মহিলাকে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় কাতরাতে দেখেই তিনি চালককে গাড়ি থামাতে বলেন।তিনি আরও জানান, অসহায় বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর শিক্ষাই তাঁরা পেয়েছেন।

খবর মিলেছে জখম বৃদ্ধাকে সাহায্যকারী সন্দীপ বসু ও সৌরভ হালদার জেলার কালনার বাসিন্দা। সন্দীপ পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সহসভাপতি। অপরদিকে, সৌরভ হালদার কালনা শহর তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি পদে রয়েছেন।