পথ দুর্ঘটনায় শিশুমৃত্যুকে ঘিরে অবরোধ-বিক্ষোভ

594

হিলি: পথ দুর্ঘটনায় শিশুমৃত্যুকে ঘিরে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাল ক্ষুদ্ধ জনতা। কার্যত ট্রাফিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে পুলিশের ভূমিকায় সরব হন স্থানীয়রা। রবিবার সকালে ঘটনাটি ঘটে হিলি থানার ত্রিমোহিনী বাজার এলাকায়। ঘটনাস্থলে পৌঁছান হিলি থানার ওসি প্রীতম সিংহ। পুলিশের হস্তক্ষেপে ঘণ্টাখানেক পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এদিন সকালে হিলি থানার ত্রিমোহিনী এলাকায় ৫১২ জাতীয় সড়কের পাশের ফুটপাথে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনজন। সেই সময় হিলিগামী একটি মুরগি বোঝাই পিকআপ ভ্যান এসে সজোরে একটি বাইকে এবং ওই তিনজনকে ধাক্কা মারে। ঘটনায় কয়েক মিটার দূরে ছিটকে পড়েন ওই তিনজন। এর মধ্যে কামনা সরকার (২২) ও তাঁর মেয়ে কলি সরকার (৬) গুরুতর জখম হন। দু’জনের বাড়ি হিলি থানার পঞ্জুল এলাকায়। এদিকে, ঘটনায় জখম হন সঞ্জয় সরকার (২৩) নামে আরও এক যুবক। এরপরই জখম তিনজনকে উদ্ধার করে বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করান স্থানীয়রা। হাসপাতালে বছর ৬-এর কলি সরকারকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। কামনা সরকারের শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাঁকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করেছেন চিকিৎসকরা।

- Advertisement -

এই ঘটনার পরই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। ক্ষুব্ধ জনতা ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান। ত্রিমোহিনীর ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে সরব হন স্থানীয়রা। ঘণ্টাখানেক ধরে চলে অবরোধ। স্থানীয়দের অভিযোগ, ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক ও রাজ্য সড়কের উপর ঠাকুরপুরা ত্রিমোহিনী থেকে হিলি পর্যন্ত রাস্তা একপাশে আবার কোথাও দু’পাশে বাংলাদেশগামী পণ্যবোঝাই লরি দাঁড়িয়ে থাকে। স্বভাবতই রাস্তার বহর অর্ধেকের বেশি সংকীর্ণ হয়ে যায়। এর জেরে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটতে থাকে। রাস্তায় পাথর পড়ে থাকা থেকে শুরু করে ধুলোর সমস্যা নিয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভপ্রকাশ করেন ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা। ট্রাফিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে পুরো হিলিজুড়ে এক রাজত্ব চলছে বলে অভিযোগ তুলে পুলিশের ভূমিকায় সরব হন মানুষজন। পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছান হিলি থানার ওসি সহ অন্য পুলিশ কর্মীরা। ওসি ত্রিমোহিনী সহ হিলির ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নতি করার প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ তুলে নেন স্থানীয়রা। দুর্ঘটনাগ্রস্ত পিকআপ ভ্যানটিকে আটক করেছে পুলিশ।

হিলি থানার ওসি প্রীতম সিং জানিয়েছেন, ঘটনায় পিকআপ ভ্যানটিকে আটক করা হয়েছে। চালক পলাতক। জাতীয় সড়কে যাতে পণ্যবোঝাই লরি দাঁড়িয়ে না থাকে সেদিকে বিশেষ নজর দেওয়া হবে।