কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি ও কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে ট্রাক্টর র‍্যালি

99

আসানসোল ও দূর্গাপুর, ৬ ফেব্রুয়ারিঃ কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে ও দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে সিপিএম এবং সকল বামপন্থী কৃষক সংগঠন শনিবার একজোট হয়ে আসানসোলের একাধিক জায়গায় চাক্কা জ্যাম কর্মসূচি পালন করল। সালানপুর ব্লকের রূপনারায়ানপুরে চিত্তরঞ্জন আসানসোল মেন রাস্তায় সারা ভারত কৃষক সংগঠনের সঙ্গে সিপিএমের সমস্ত সংগঠন চাক্কা জ্যাম কর্মসূচিতে সামিল হয়েছিল। এই কর্মসূচি প্রায় আধঘণ্টা চলেছে। শেষে রূপনারায়ানপুর ফাঁড়ির পুলিশের হস্তক্ষেপে এই অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, সিটু নেতা প্রদীপ বন্দোপাধ্যায়, মেঘনাথ বন্দোপাধ্যায়, অশোক বন্দোপাধ্যায়, মহিলা সমিতি নেত্রী তাপসী চৌধুরী প্রুমখ।

এদিনের কর্মসূচি থেকে অবিলম্বে ৩টি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি তোলা হয়েছে। এছাড়াও প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বিজেপি সরকারের দেওয়া সকল প্রতিশ্রুতি পূরণ করার দাবি তোলা হয়। এই প্রসঙ্গে সালানপুর ব্লকের কৃষক নেতা গণেশ পন্ডিত বলেন, যারা আমাদের অন্ন দিচ্ছে, তাঁদের হত্যা করছে এই কেন্দ্র সরকার৷ প্রতিমুহূর্তে দেশের মানুষকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলেছে বিজেপি। কেন্দ্র সরকার গরীব মানুষের জন্য ভাবছে না বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

- Advertisement -

অন্যদিকে, কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে কুলটির নিয়ামতপুর মোড়ে বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস যৌথভাবে চাক্কা জ্যাম ও জিটি রোড অবরোধ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কৃষি আইনের বিরোধিতায় জামুড়িয়ার বিজয়নগর মোড় থেকে খাস কেন্দা মোড় পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ট্রাক্টর র‍্যালি করা হয়। প্রায় ২০০ এর বেশি ট্রাক্টর ও বাইক এই র‍্যালিতে অংশগ্রহণ করে। ওই র‍্যালির নেতৃত্বে ছিলেন আসানসোল পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের মন্ডলীর সদস্য অভিজিৎ ঘটক।

একইসঙ্গে, দিল্লির কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে ও অল ইন্ডিয়া কিষান সংঘর্ষ সমন্বয় কমিটির আহ্বানে বার্নপুর গুরুদুয়ারা প্রবন্ধক কমিটির পক্ষ থেকে এদিন আসানসোল শহরের ভগৎ সিং মোড়ে চাক্কা জ্যাম কর্মসূচি পালন করা হয়। গুরুদুয়ারা কমিটির সম্পাদক সুরিন্দার সিং, আমরা বঙ্গবাসীর সুদীপ চক্রবর্তী, আসানসোল সিভিল রাইটস অ্যাসোসিয়েশনের সুমন কল্যাণ মৌলিক, সমাজকর্মী শাহিদ পারভেজ প্রমুখ সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও, পশ্চিম বর্ধমান জেলার দূর্গাপুরের কাঁকসা, হরিপুর ও পাণ্ডবেশ্বরেও এদিন একই কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।