রাস্তা সংস্কারের দাবিতে সড়ক অবরোধ, ভোট বয়কটের হুমকি

120

গাজোল: নির্বাচনের আগে রাস্তা তৈরি না হলে ভোট বয়কটের পথে হাঁটবে মাঝরা এবং সাহাজাদপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষ। বৃহস্পতিবার মাঝরা এলাকায় গাজোল-বামনগোলা পূর্ত সড়ক অবরোধ করে এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ওই সমস্ত গ্রামের মানুষেরা। এদিন সকাল থেকেই বাঁশ এবং টায়ার দিয়ে গোটা রাস্তা ঘিরে অবরোধে শামিল হন তাঁরা। ধামসা মাদল বাজিয়ে চলতে থাকে অবরোধ। ব্যস্ত সময় অবরোধের জেরে রাস্তার দু’দিকে দাঁড়িয়ে পরে প্রচুর যানবাহন। গ্রামবাসীদের বক্তব্য, ভোট আসে ভোট যায়, ভোটের আগে পাওয়া যায় একাধিক প্রতিশ্রুতি। কিন্তু ভোটের পর সেই প্রতিশ্রুতি পূরণের জন্য কোনও ব্যবস্থাই নেওয়া হয় না। রাস্তা তৈরি না হলে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভোট বয়কট করা হবে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা।

আন্দোলনকারী গোপাল চন্দ্র সেন সহ অন্যান্যরা জানান, মাঝরা বাসস্ট্যান্ড থেকে সাহাজাদপুর গ্রাম পঞ্চায়েত অফিস পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার লম্বা এই রাস্তা। জোতমনি উত্তর-দক্ষিণ, বামনগ্রাম প্রভৃতি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের যাতায়াতের জন্য একমাত্র ভরসা এই রাস্তা। প্রায় গোটা এলাকাই তপশিলি জাতি এবং উপজাতি অধ্যুষিত। বর্ষার সময় এই রাস্তা দিয়ে চলাফেরা দায় হয়ে ওঠে। চরম সমস্যার মধ্যে পড়ে ছাত্র-ছাত্রী এবং রোগীরা। রাস্তার অবস্থা এতটাই খারাপ হয়ে ওঠে যে অ্যাম্বুলেন্স ঢুকতে ভয় পায়। খাটিয়াতে চাপিয়ে রোগীদের নিয়ে আসতে হয় রোডে। গতবছরের ১৯ আগস্ট একই দাবি নিয়ে রাস্তা অবরোধ করেছিলেন তাঁরা। সেবার পুলিশ এবং যুগ্ম বিডিওর কাছ থেকে আশ্বাস পাওয়ার পর অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন।

- Advertisement -

অবরোধকারীরা আরও জানান, বছর আড়াই আগে বর্তমান বিধায়ক দিপালী বিশ্বাস রাস্তার কাজের শিলান্যাস করেছিলেন। কিন্তু তেমন ভাবে কাজ হয়নি। দিন কয়েক আগে নতুন করে কিছু ইট, বালি ফেলা হলেও তা যথেষ্ট নয় বলে জানান তাঁরা। গ্রামবাসীদের দাবি, ভোটের আগে যদি সম্পূর্ণ রাস্তা তৈরি না হয় তাহলে এবার সরাসরি ভোট বয়কটের পথে হাঁটবেন তাঁরা। অবরোধের জেরে গাজোল-বামনগোলা পূর্ত সড়কে যানচলাচল সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায়। সকাল থেকেই অবরোধকারীদের সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা চালায় পুলিশ। অবশেষে বেলা আড়াইটা নাগাদ রাস্তা অবরোধ মুক্ত করতে সমর্থ হয় পুলিশ।