ফালাকাটা : চলতি বছরের গোড়ার দিকে  মাথাভাঙা-২ ব্লকের রামঠেঙার ঢালাই সজডক থেকে কয়েকটি গ্রাম হয়ে ফালাকাটার দুলাল দোকান অবধি সাড়ে পাঁচ কিমি বিটুমিনাসের রাস্তার কাজ শুরু করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। কয়েক মাস চলার পর লোকসভা ভোট ও বর্ষার অজুহাতে আর কাজ এগোয়নি। কোচবিহার জেলার কয়েকটি গ্রাম সহ ফালাকাটা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন এলাকার কয়েক হাজার বাসিন্দা, ব্যবসায়ী, শ্রমিক, পড়ুয়া ফালাকাটা শহরে যাতায়াতে এই রাস্তা ব্যবহার করে। শহরের প্রবেশ পথই হল মিল রোড চৌপথি লাগোয়া দুলাল দোকান এলাকা। শহরাঞ্চলের একাংশ বাসিন্দাও ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করেন। স্থানীয়দের দাবি,বালি,পাথর বসানো ওই আধা নির্মিত রাস্তায় চলাচলে দারুন সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সবাইকে। কাটা পাথর ছিটকে দুর্ঘটনাও হচ্ছে। বৃষ্টি না হলে ধুলোর ঝড়ে নাজেহাল হতে হয় বাসিন্দাদের। স্থানীয়দের অভিযোগ,চার-পাঁচ মাস থেকে রাস্তার কাজটি বন্ধ রয়েছে। এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কোনো হেলদোল না থাকায় ফালাকাটার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তবে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার শরদিন্দু রায় বলেন, ‘দু’মাস ধরে কাজটি বন্ধ রয়েছে। কাজ দ্রুত শুরু হবে।’

ফালাকাটা-কোচবিহার জাতীয় সড়কের দুলাল দোকান থেকে বড়ো শৌলমারি, দেবসিংপাড়া হয়ে রামঠেঙ্গা ঢালাই সড়ক পর্যন্ত সাড়ে পাঁচ কিমি রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল ছিল। পাকা রাস্তার দাবি করছিলেন বাসিন্দারা। সেই দাবি মেনে বছরের শুরুতে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের ৩ কোটি ৮৬ লক্ষ ৬০ হাজার ৪০৫ টাকায় বিটুমিনের রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু হয়। লোকসভা ভোটের পর থেকে সেভাবে কাজ এগোয়নি। কয়েক মাস থেকে রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় এলাকার মানুষ সমস্যায় পড়েছেন। স্থানীয় সবজি ব্যবসায়ী নন্দ গোপ বলেন,’এখন গোটা রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে পাথর। এজন্য সাইকেলে চেপে যাতায়াত করতে সমস্যা হচ্ছে।’ একই বক্তব্য আরেক ব্যবসায়ী সুবল বিশ্বাসের। শৌলমারির মাধব গোপ বলেন,’সব সময় এই রাস্তা হয়েই ফালাকাটা শহরে যেতে হয়। এভাবে মাসের পর মাস কাজ বন্ধ থাকায় সমস্যা হচ্ছে।’ কয়েক হাজার স্কুল,কলেজের পড়ুয়া এই রাস্তা দিয়ে ফালাকাটায় নিয়মিত যাওয়া-আসা করে। সবুজসাথীর সাইকেল নিয়ে রাস্তায় চলাচলের ক্ষেত্রে বিপাকে পড়েছে ছাত্রীরা। ছাত্রী অ্যালিনা ইয়াসমিন জানায়,গোটা রাস্তায় কাটা পাথর বিছানো থাকায় সাইকেলে চেপে স্কুলে যেতে সমস্যা হচ্ছে।

রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ফালাকাটা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের দুলাল দোকান এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য গোফুর আহমেদ। তাঁর অভিযোগ,প্রায় পাঁচ মাস থেকে রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় কয়েক হাজার মানুষ বিপাকে পড়েছেন। তিনি বলেন,’কী কারণে বন্ধ রয়েছে, আবার কবে নাগাদ কাজটি শুরু হবে তা স্পষ্টভাবে এলাকার মানুষ জানতে চায়।’ তবে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার শরদিন্দু রায় বলেন,’বর্ষার কারণে দু’মাস থেকে ওই রাস্তার কাজটি বন্ধ রয়েছে। পাকুড়ে পাথরেরও সমস্যা ছিল। তবে পাথরের সংকট মিটেছে। খুব তাড়াতাড়ি বাকি কাজ শুরু হবে।দুর্গাপুজোর আগেই বিটুমিনাসের ওই রাস্তা সম্পূর্ণ তৈরি হয়ে যাবে।’

ছবি : ফালাকাটার দুলাল দোকান এলাকায় বন্ধ রয়েছে বিটুমিনাসের রাস্তার কাজ।

তথ্য ও ছবি : সুভাষ বর্মন