ভোটের আগে ফালাকাটায় রাস্তার কাজ শুরু, কটাক্ষ বিজেপির 

247

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা: প্রায় তিন বছর পর বেহাল রাস্তার কাজ শুরু হল ফালাকাটায়। ২০২১’র বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে কাদম্বিনী মোড় থেকে রাইচেঙ্গা বিদ্যানিকেতন হাইস্কুল পর্যন্ত রাস্তার রিপেয়ারিংয়ের কাজ শুরু হওয়ায় তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে রাজনৈতিক চাপানউতোর তৈরি হয়েছে। বিজেপির দাবি, এতদিন এই বেহাল রাস্তার দিকে নজর দেয়নি প্রশাসন। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তাই এখন তড়িঘড়ি রাস্তা সংস্কার করা হচ্ছে বলে বিজেপি নেতারা জানিয়েছেন। তবে তৃণমূলের বক্তব্য, ভোটের কথা ভেবে নয়, ফালাকাটায় ধারাবাহিক উন্নয়ন চলছে। করোনা পরিস্থিতি ও বর্ষার কারণে থমকে থাকা ওই রাস্তার কাজ এখন হচ্ছে। এদিকে, দেরিতে হলেও রাস্তার কাজ শুরু হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

ফালাকাটা শহর লাগোয়া ফালাকাটা-আলিপুরদুয়ার সড়কের কাদম্বিনী মোড় থেকে রাইচেঙ্গা বিদ্যানিকেতন হাইস্কুল পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন বেহাল। গোটা রাস্তার পিচের চাদর উঠে কাটা পাথর বেড়িয়ে এসেছে। এজন্য রাইচেঙ্গা,মাস্টারপাড়া ও কাদম্বীনি চা বাগান এলাকার বাসিন্দাদের যাতায়াতে চরম ভোগান্তি হচ্ছিল। স্থানীয়দের অভিযোগ, বারবার রাস্তা সংস্কারের দাবি প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। কিন্তু প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও রাস্তা সারাই হয়নি। কয়েক বছর আগে ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতি থেকে রাস্তা সংস্কার করা হয়েছিল। কিন্তু প্রায় তিন বছরেই রাস্তার কঙ্কালসার চেহারা বেরিয়ে আসে।

- Advertisement -

প্রশাসন সূত্রের খবর, এবার আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদ থেকে এই রাস্তা সংস্কারের জন্য অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে। সম্প্রতি রাস্তার কাজ শুরু হয়। জেলা পরিষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, রাস্তা সংস্কারের জন্য ৬ লক্ষ ৮২ হাজার ৪৩৭ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আগামী দু’মাসের মধ্যে রাস্তার কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। এখন গোটা রাস্তায় বালি, পাথর বিছিয়ে কাজ চলছে জোরকদমে।

রাস্তার পাশেই বাড়ি ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি সন্ধ্যা বিশ্বাসের। তিনি বলেন, ‘প্রায় তিন বছর রাস্তা বেহাল। এবার জেলা পরিষদ থেকে কাজ হচ্ছে। দেরিতে হলেও রাস্তা সংস্কার শুরু হওয়ায় এলাকার মানুষ খুশি।’ স্থানীয় স্কুল শিক্ষক নারায়ণ সরকার বলেন, ‘বেহাল রাস্তার কারণে এতদিন যাতায়াতে খুবই সমস্যা হচ্ছিল। এখন কাজ চলছে। আমরা খুশি। তবে রাস্তার কাজ যাতে ভালোভাবে হয়, সেদিকেও এলাকার মানুষ নজর দিচ্ছেন।’ ফালাকাটা কলেজ ছাত্রী রাইচেঙ্গার পুজা দাস বলেন, ‘খারাপ রাস্তার কারণে সমস্যা হচ্ছিল। কাজ শুরু হওয়ায় আমরা খুশি।’

অন্যদিকে, রাস্তার কাজ নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক দীপক বর্মন বলেন, ‘ভোট আসছে বলেই ফেলে রাখা কাজ তড়িঘড়ি করা হচ্ছে। অথচ এতদিন এই গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার দিকে প্রশাসন নজর দেয়নি। তাই কাজের মান কতটা ভালো হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। এই তৎপরতা ভোটের চমক ছাড়া আর কিছু নয়। তবে এরকম আরও বহু বেহাল রাস্তা ফালাকাটায় রয়েছে।’

তবে রাস্তার কাজের সঙ্গে ভোটের সম্পর্কের কথা মানতে চায়নি তৃণমূল কংগ্রেস। দলের ফালাকাটা ব্লক সভাপতি সুভাষ রায় বলেন, ‘উন্নয়নের কাজের সঙ্গে ভোটের কোনও সম্পর্ক নেই। ফালাকাটায় ধারাবাহিক উন্নয়ন চলছে। করোনা পরিস্থিতি ও বর্ষার কারণে রাইচেঙ্গার রাস্তার কাজ দেরিতে শুরু হয়েছে। তবে বিজেপি নেতাদের চোখে উন্নয়ন ধরা পড়বে না। কারণ, বিজেপির সাংসদ অনেক প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনও ফালাকাটায় কোনও কাজ করতে পারেননি।’