বাগদাদ, ৫ জানুয়ারিঃ মার্কিন হামলায় ইরানের কুদস বাহিনীর প্রধান কাশেম সোলেমানির মৃত্যুর পর পালটা আঘাত হানল ইরানি সেনা।  শনিবার রাতে বাগদাদে মার্কিন সেনাঘাঁটি ও দূতাবাস লক্ষ্য করে রকেট হামলা চালানো হয়। ইরাকের গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাসের কাছেই আছড়ে পড়ে কয়েকটি রকেট। তবে এখনও পর্যন্ত কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।  এছাড়াও ইরাকের মসুলে মার্কিন সেনাঘাঁটি লক্ষ্য করে পরপর বেশ কয়েকটি রকেট নিক্ষেপ করেছে ইরানের বায়ুসেনা। এই হামলায় মার্কিন সেনাঘাঁটির বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে খবর। আশঙ্কা করা হচ্ছে এই হামলায় অনেক সেনা-জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। যদিও আমেরিকার তরফে এখনও এই হামলার সত্যতা বা হতাহতের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

সোলেমানির মৃত্যুর পর ইরান বদলা নিতে পারে এই আশঙ্কাতে আগেই সেখানে বসবাসকারী মার্কিন নাগরিক ও কূটনৈতিক ব্যক্তিদের দেশে ফেরার নির্দেশ দিয়েছে পেন্টাগন। তার মধ্যেই এই হামলার খবর পাওয়া গিয়েছে। অন্যদিকে ইরানের ৫২টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বড়সড় সামরিক হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরপর তিনটি টুইট করে ট্রাম্প বলেছেন, ইরান কোনও মার্কিন নাগরিক বা আমেরিকার কোনও সম্পত্তির উপর হামলা করলে আমেরিকা পালটা হামলা চালাবে। এবং কোথায় কোথায় হামলা চালানো হবে সেই জায়গাগুলি বেছে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। টুইট করে ট্রাম্প বলেছেন, আমরা ৫২টি জায়গাকে টার্টেট করেছি, যার মধ্যে অনেকগুলি ইরানের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির কাছে খুবই গুরুত্বপূ্র্ণ। ইরান যদি কোনও মার্কিন নাগরিক বা আমেরিকার কোনও সম্পত্তির উপর হামলা করে, আমরা দ্রুত ভয়ংকর ধরনের পালটা আঘাত হানব।