পচাগলা ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার গাজোলে

309

গাজোল: পচাগলা ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল গাজোলের রাঙাভিটা কুন্ডু পাড়া এলাকায়। দিন তিনেক আগে ওই যুবক নিজের শোয়ার ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হয়েছিলেন বলে অনুমান করা হচ্ছে। সোমবার থেকে এলাকায় পচা গন্ধ ছড়িয়ে পড়তেই লোকজনেরা গন্ধের উৎস সন্ধানে বেরিয়ে পড়েন। মঙ্গলবার সকালে জানলার ফাঁক দিয়ে ওই যুবককে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে গাজোল থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে মালদা মেডিকেল কলেজে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম শোভন কুন্ডু (৩৫)। বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন রকম নেশা করতেন ওই যুবক। যার ফলে পরিবারের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক বিচ্ছেদ হয়। তারপর থেকে একাই থাকতেন। গত শুক্রবার তাঁকে শেষবারের মত দেখতে পেয়েছিলেন আত্মীয় পরিজনরা। তারপর থেকে তাঁর আর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে এদিন সকালে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার হয়।

- Advertisement -

মৃতের আত্মীয় অলক কুণ্ডু জানিয়েছেন, বিভিন্ন কারণে পরিবারের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল না। স্ত্রী-সন্তানরাও তাঁকে ছেড়ে চলে গিয়েছিল। বিভিন্ন রকম নেশাও করতেন। বাড়ির লোক তাঁর চিকিৎসার পিছনে বহু টাকা খরচ করেছেন। কিন্তু তারপরেও কোনও লাভ হয়নি। গতকাল এলাকায় পচা গন্ধ বের হতে শুরু করে। রাতে বেশি খোঁজাখুঁজি করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু এদিন সকাল থেকে গন্ধের উৎস সন্ধানে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। তখনই দেখা যায় শোভনের ঘর থেকে গন্ধ আসছে। এরপরই খবর পেয়ে পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

মৃত শোভনের বাবা সজল কুন্ডু বলেন, ‘ছেলে দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন ধরনের নেশা করত। নেশা ছাড়ানোর জন্য বহু জায়গায় তার চিকিৎসা করা হয়েছে। নেশার টাকা যোগাড় করতে গিয়ে বাড়ি বন্ধক রাখা হয়েছে, দোকান বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও শোধরায়নি সে। তার অত্যাচারে আমরা বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছি। তবুও সন্তানের মায়া ত্যাগ করতে না পারায় মাঝে মধ্যেই তাকে খাওয়া দাওয়ার জন্য টাকা দিতাম। দিন কয়েক আগে ও ৫০০  টাকা দিয়েছি। কিন্তু সেই টাকার ভাত না খেয়ে সে নেশা করে উড়িয়ে দিয়েছে। কয়েকদিন ধরেই তাকে দেখা যাচ্ছিল না। গতকাল এলাকাতে পচা গন্ধ বের হতে শুরু করে। এদিন সকালে উদ্ধার হয় তার পচাগলা মৃতদেহ।’

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।