জেলায় জেলায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ

131

নিউজ ব্যুরো: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী সিতাই বিধানসভা এলাকায় শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ শুরু হল। এদিন দিনহাটা থানার অন্তর্গত সীমান্তবর্তী গিতালদহ এবং সন্নিকটবর্তী অঞ্চল সহ সিতাই থানার একাধিক এলাকায় এই টহলদারি চলে। দিনহাটার এসডিপিও অমিত বর্মা, দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্ত গিতালদহ এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন। পুলিশের ফোন নম্বরও এলাকাবাসীকে দেওয়া হয়। এসডিপিও জানান, কেন্দ্রীয় বাহিনী এদিন এই মহকুমার একাধিক এলাকায় রুটমার্চ করে।

দিনহাটার গিতালদহ এলাকায় রুটমার্চ করল কেন্দ্রীয় বাহিনী। এদিন দুপুরে দিনহাটা পুলিশের এসডিপিও অমিত ভার্মা এবং দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্তের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা গিতালদহ-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের কোনামুক্তা, খারিজা হরিদাস, ভোরাম পয়েস্তি সহ বিভিন্ন এলাকায় রুটমার্চ করে।

- Advertisement -

কুশমণ্ডিতেও এদিন রুটমার্চ শুরু হয়। সকাল ১০টা থেকে রুটমার্চ শুরু হয় কালিকামরা, আমিনপুর ও কুশমণ্ডি বাজারে। আগামী কয়েকদিন বিএসএফের জওয়ানরা কুশমণ্ডি ব্লক এর স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে রুটমার্চ করবে বলে জানান আইসি তপন পাল।

অন্যদিকে, পশ্চিম বর্ধমান জেলায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর এরিয়া ডোমিনেশন ও রুটমার্চ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই পাঁচ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী জেলায় এসে পৌঁছেছে। পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলের উত্তর থানার রেলপারের বিভিন্ন এলাকায় রুটমার্চ হয়। সঙ্গে ছিলেন জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি ও আসানসোল দুর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন, সিআইএসএফের কমাণ্ডান্ট সহ পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা।