গুজবে উত্তেজনা হাসপাতালে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ

107

হরিশ্চন্দ্রপুর: জীবিত রোগীকে মৃত বলে ঘোষণা করার অভিযোগ উঠল হরিশ্চন্দ্রপুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, হাসপাতালের তরফে স্ট্রোকে আক্রান্ত এক মহিলাকে মৃত বলে ঘোষণা শেষে মৃতদেহ বাড়ি নিয়ে যাওয়ার পরও দেহে প্রাণ ছিল। পরিবারের দাবি, মৃতের মুখে জল দিতেই তা গিলে নেন তিনি। ঘটনায় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ফের মৃতদেহ নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছোন রোগীর পরিজনরা। অন্যদিকে, এই খবর চাউর হতেই স্থানীয়রাও হাসপাতালে চড়াও হন। পরে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মৃত্যুর পর দেহ চারঘন্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। সেসময় হাত এবং পায়ের পেশীতে টান ধরতে থাকে। বিষয়টিকে রিগর মর্টিস বলে। ফলে শরীরের কোনও অংশ নড়াচড়া করছে বলেও মনে হতে পারে। এক্ষেত্রে তেমনটাই হয়েছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা। অন্যদিকে, হাসপাতাল সূত্রে খবর, রোগীকে মৃত বলে ঘোষণার পর মৃতদেহ পর্যবেক্ষণে রাখার কথা ছিল। যদিও মৃতের পরিবারের বারংবার অনুরোধ করায় দেহ ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল।

- Advertisement -

হরিশ্চন্দ্রপুর-১ এর বিএমওএইচ অমলকৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, ‘স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে ওই মহিলার। তিনি বেঁচে রয়েছেন বলে যে দাবি করা হচ্ছে তা গুজব ছাড়া কিছু নয়।’ যদিও রোগীর পরিজনরা এবিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।