নয়ানজুলি বুজিয়ে দিয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার, বর্ষায় বিপদের আশঙ্কা শক্তিগড়ে

246

রাহুল মজুমদার, শিলিগুড়ি : মাটি ফেলে দীর্ঘদিনের নয়ানজুলি বুজিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল পূর্ত দপ্তরের বিরুদ্ধে। শিলিগুড়ি পুরনিগমের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের পিডব্লিউডি মোড়ে এমন ঘটনায় এলাকার মানুষ রীতিমতো ক্ষুব্ধ। অভিযোগ, পিডব্লিউডি মোড় সংলগ্ন পিডব্লিউডি বাংলোর পাশে থাকা দীর্ঘদিনের নয়ানজুলি বুজিয়ে দিয়েছে পূর্ত দপ্তর। ফলে শক্তিগড়ের বিস্তীর্ণ এলাকার জল আটকে গিয়েছে। এর জেরে বর্ষার সময় সমস্যায় পড়তে হবে এলাকাবাসীকে। অভিযোগ, ওয়ার্ড কাউন্সিলার দীপা বিশ্বাস বিষয়টি নিয়ে পূর্ত দপ্তরের আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বললেও কোনও লাভ হয়নি। তাই বিষয়টি নিয়ে পূর্ত দপ্তরকে চিঠি দিচ্ছেন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। মেয়র বলেন, নয়ানজুলি বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর আগে এশিয়ান হাইওয়ে তৈরির সময়ও নয়ানজুলি বুজিয়ে ফেলা হয়েছিল। কাউন্সিলার আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন। আমি বিষয়টি নিয়ে পূর্ত দপ্তরকে চিঠি লিখছি। পূর্ত দপ্তরের আধিকারিকদের একাংশের যুক্তি, তাঁদের জায়গায় তাঁরা যা খুশি করতে পারেন। দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল তাই বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে দপ্তরের এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার চন্দন ঝায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন না ধরায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শিলিগুড়ির ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় নয়ানজুলির উপর দোকান তৈরি হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় নয়ানজুলি বুজিয়ে ফেলা হয়েছে। যার ফলে শক্তিগড়ের নিকাশির জল বিভিন্ন জায়গায় আটকে রয়েছে। এর জেরে যেমন দুর্গন্ধ হচ্ছে তেমনই মশা-মাছির উপদ্রব বাড়ছে। আবার এই জল বেরোতে না পারলে আগামী বর্ষায় শক্তিগড় এলাকায় জল জমার আশঙ্কা রয়েছে। এর মধ্যে পিডব্লিউডির বাংলোর সামনে থাকা নয়ানজুলি মাটি ফেলে বুজিয়ে দিয়ে বেড়া দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছে। দপ্তরের এক আধিকারিকের দাবি, দুর্গন্ধ ছড়ায় তাই বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই নয়ানজুলি বুজিয়ে ফেললে সাধারণ মানুষের যে সমস্যা হবে তাতে তাঁদের কোনও দায় নেই বলে দাবি ওই আধিকারিকের।

- Advertisement -

পিডব্লিউডি মোড়ে পূর্ত দপ্তরের জায়গায় থাকা নয়ানজুলি দখল করে প্রচুর দোকান তৈরি হয়েছে। ফলে ওই নয়ানজুলিগুলিও পরিষ্কার করা যাচ্ছে না। তাই চলতি বছর বর্ষায় ব্যাপক সমস্যা হবে বলে আশঙ্কা কাউন্সিলারের। তাই পূর্ত দপ্তর ওই দোকানগুলি সরানোর ব্যবস্থা করলে পুরনিগম নয়ানজুলি পরিষ্কার করে দেবে বলে জানিয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে পূর্ত দপ্তর ওয়ার্ড কাউন্সিলার কিংবা পুরনিগমকে এখনও কিছু জানায়নি। তাই কয়েকদিনের মধ্যে পূর্ত দপ্তরকে চিঠি দিচ্ছে শিলিগুড়ি পুরনিগম। অন্যদিকে, পূর্ত দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী সপ্তাহে ওই এলাকার সমস্ত দোকান সরানোর জন্যে নোটিশ দিচ্ছে পূর্ত দপ্তর। দোকান সরিয়ে দিলে পুরনিগম নয়ানজুলি পরিষ্কার করে দেবে বলে জানিয়েছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলার দীপা বিশ্বাস। তিনি বলেন, এলাকায় বেশিরভাগ নয়ানজুলি এশিয়ান হাইওয়ে তৈরির সময় বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিছু নয়ানজুলি দখল হয়ে গিয়েছে। পূর্ত দপ্তরের বাংলোর সামনে থাকা নয়ানজুলিও বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। এরকম হলে বর্ষায় এলাকা জলের তলায় চলে যাবে।