বিক্রি নামমাত্রই, মুখভার ব্যবসায়ীদের

212

বীরপাড়া: করোনায় কারও ব্যবসা বন্ধ হয়েছে, আবার কারও ব্যবসা ধুঁকছে। কেউ আবার পেশা পালটে ফেললেও লাভের মুখ দেখেননি। সামগ্রিকভাবে অর্থনৈতিক দিক থেকে ভালো নেই বীরপাড়া সহ সংলগ্ন এলাকার সাধারণ মানুষেরা। এর প্রভাব পড়েছে পুজোর বাজারেও। প্রত্যাশা মতো বিক্রি হল না চতুর্থীতেও। ফলে মুখভার বীরপাড়ার দোকানদারদের।

করোনার প্রকোপ কমায় এবছর লোকসান পুষিয়ে নেওয়া যাবে, এমনটাই আশা করেছিলেন ব্যবসায়ীরা। তাই পুজো উপলক্ষ্যে পণ্য মজুত করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু পুজোর বাজার হতাশ করেছে তাদের। বস্ত্র ব্যবসায়ী সমীর পাল বলেন, ‘বিক্রিবাট্টা হলেও প্রত্যাশা অনুপাতে অনেকটাই কম।‘ বীরপাড়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক তথা জুতো ব্যাবসায়ী কার্তিক সরকার বলেন, ‘এবারও পুজোর বাজার জমল না। করোনা এতটাই প্রভাব ফেলেছে যে পুজোর কেনাকাটা করার সামর্থ্য নেই অনেকেরই।‘

- Advertisement -

অর্থনৈতিক কারণে বাজেটে কাটছাট করে কেবলমাত্র নিয়ম রক্ষার্থে পুজো করা হচ্ছে বলে জানান অনেক পুজোর আয়োজক। রবীন্দ্রনগরের প্রবীণ নাগরিক প্রশান্ত নাহা বলেন, ‘করোনা মানুষের অর্থনৈতিক জীবনকে তছনছ করে দিয়েছে। তাই কেনাকাটা এবং পুজো নিয়ে উৎসাহ নেই।‘ সারদাপল্লীর যুবক সুব্রত পাল বলেন, ‘শনিবার পর্যন্ত পুজোর পোশাক কেনা হয়নি। করোনার জেরে দীর্ঘদিন ব্যবসা বন্ধ ছিল। অনেকেই আর্থিক সমস্যায় ভুগছেন।‘