ধরলা নদী থেকে অবাধে বালি পাচার

শুভদীপ শর্মা, লাটাগুড়ি : প্রশাসনের নাকের ডগায় দিনের পর দিন ডাম্পার নামিয়ে ধরলা নদী থেকে বালি পাচার চলছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, প্রশাসনের মদতে এই অবৈধ কারবার চলছে। যদিও মাল মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর এই বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরেই লাটাগুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের উত্তর মাটিয়ালি ও ক্রান্তি ধনতলা লাগোয়া ধরলা নদী থেকে এইভাবে বালি চুরি চলছে। একশ্রেণির অবৈধ কারবারি এই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এলাকাবাসী রতন অধিকারী, দিলীপ সিংহ প্রমুখ জানান, উত্তর মাটিয়ালিতে ধরলা নদীর যে এলাকা থেকে এই বালি চুরির কারবার চলছে তার পাশেই রয়েছে স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির তৈরি মাটির বাঁধ। যে হারে অপরিকল্পিতভাবে নদী থেকে মাটি তোলা হচ্ছে তাতে এই বাঁধের ক্ষতি হতে পারে। এরফলে আগামী বর্ষায় বাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। অপর এক বাসিন্দা প্রদীপ অধিকারী বলেন, বালিবোঝাই সব ডাম্পার লাটাগুড়ি-ক্রান্তিগামী ক্যানাল রাস্তা হয়ে যাতায়াত করায় সংশ্লিষ্ট রাস্তাটিও বেহাল হয়ে পড়েছে। এরফলে রাস্তাটির বহু অংশে বড় গর্ত তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন গ্রামবাসী।

- Advertisement -

লাটাগুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান জগবন্ধু সেন এবং স্থানীয় বাসিন্দা তথা মাল পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মহুয়া গোপ বালি চুরির অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন। তাঁরা পুলিশ ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের কাছে অবৈধ বালির কারবারের সঙ্গে যুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। মাল মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের আধিকারিক প্রীতি লামা বলেন, আমরা ওই এলাকায় মাঝেমধ্যেই অভিয়ান চালাই। সম্প্রতি ওই এলাকায় গিয়েছিলাম। কিন্তু, সেখানে কোনও গাড়ি পাওয়া যায়নি। আগামীদিনেও এই ধরনের অভিয়ান চলবে বলে জানান তিনি।