সাঙ্গার টিপস আর সাহসী ক্রিকেট সঞ্জুর হাতিয়ার

মুম্বই : আইপিএল শুরুর অনেক আগেই বড় চমক দিয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। দলের অধিনায়ক হিসেবে সঞ্জু স্যামসনকে বেছে নিয়েছিল রয়্যালস শিবির। তবে অবাক হননি সঞ্জু নিজে। স্টিভ স্মিথের জুতোয় যে পা গলাতে চলেছে, সেখবর আগে থেকেই ছিল কেরলের এই ডান হাতি ব্যাটসম্যানের কাছে। স্মিথের পরিবর্তে তাঁর হাতে নেতত্বের ব্যাটন সঁপে দেওয়ার পর শুভেচ্ছাবন্যায় ভেসে গিয়েছেন সঞ্জু। সেই তালিকায় রয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনি, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলির মতো তারকার নাম।

তবে আবেগ-উচ্ছ্বাসে ভেসে না গিয়ে নিজের আগামীর লক্ষ্যে স্থির স্যামসন। ধোনির নেতৃত্বের গুণমুগ্ধ সঞ্জু অবশ্য ক্যাপ্টেন কুল-কে অনুকরণে নারাজ। বরং মাঠে অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক হিসেবে দ্বৈত ভূমিকায় নিজস্বতা তুলে ধরতে মরিয়া তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে কেরলকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি সঞ্জু ক্যাপ্টেন ছিলেন ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলেরও। ২৬ বছরের মালয়ালি তারকার মন্তব্য, একজন অধিনায়কের সাফল্য দলের পারফরমেন্সের ওপরে নির্ভর করে বলে বিশ্বাস করি। টিম ম্যানেজমেন্ট আমার ওপরে ভরসা রেখেছেন। এটা বড় প্রাপ্তি। দলে একঝাঁক গ্রেট ক্রিকেটার রয়েছে। সাপোর্ট স্টাফরাও দুর্দান্ত। ২০১৩ থেকে আমি রয্যালসের সঙ্গে যুক্ত। অধিনায়ক হিসেবে টিমকে সাফল্য দেওয়াই আমার লক্ষ্য থাকবে।

- Advertisement -

ডরভয়হীন ক্রিকেটকে হাতিয়ার করে আসন্ন আইপিএল অভিযানে নামতে চান সঞ্জু। ১২ এপ্রিল পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে ম্যাচ রয়েছে রাজস্থান রয়্যালসের। আর সেই লক্ষ্য সঞ্জুর অন্যতম ভরসা কুমার সাঙ্গাকারার পরামর্শ। চলতি মরশুমে রাজস্থান রয়্যালসের ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে রয়েছেন লঙ্কান কিংবদম্তি। তাঁর উপস্থিতি উপভোগ করছেন রয়্যালস অধিনায়ক। সঞ্জু বলেছেন, সাঙ্গা লেজেন্ড। শুধু ক্রিকেটার হিসেবেই নয়, ওঁর ব্যক্তিত্ব আমায় মুগ্ধ করে। আমার সঙ্গে সাঙ্গার দারুণ সম্পর্ক। আমরা একে অপরের সঙ্গে নিজেদের মতামত ভাগ করে নিই। সাঙ্গাকারার উপস্থিতি অধিনায়ক হিসেবে আমাকে আত্মবিশ্বাস জোগায়।