ভোট মিটতেই ভোলবদল, তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে আর্জি সরলা-অমলের

236

পুরাতন মালদা: সোনালি গুহ, অমল আচার্যের পর এবার তৃণমূলে ফেরার আর্জি জানালেন মালদা জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাধিপতি সরলা মুর্মু। ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন বর্তমান মালদা জেলা পরিষদের সদস্য সরলা মুর্মু। তাঁকে হবিবপুর বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করেছিল তৃণমূল। এরপরও তিনি দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। পাশাপাশি, তৃণমূলে ফেরার আবেদন জানিয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি ও ইটাহারের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক অমল আচার্যও।

গত কয়েকদিন ধরে তৃণমূল ছেড়ে যাওয়া অনেক নেতা-নেত্রীরা ফের দলে ফেরার আর্জি জানাচ্ছেন। বিধানসভা নির্বাচনের আগে অনেকেই ভেবেছিলেন, পশ্চিমবঙ্গের সরকারের পরিবর্তন হতে পারে। ক্ষমতায় আসতে পারে বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে বহু নেতা-নেত্রী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। তৃতীয়বারের মতো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার সরকার গঠন করেছেন। এরপর থেকেই বিজেপিতে যাওয়া নেতা-নেত্রীরা পুনরায় তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য আর্জি জানান। এবার সেই পথে হাঁটলেন সরলা মুর্মুও।

- Advertisement -

এই বিষয়ে তৃণমূলের নেতা-নেত্রীদের একাংশের মত, বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলকে বিপদে ফেলে যাঁরা বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, এমন নেতা-নেত্রীদের যেন দলে ফিরিয়ে না নেওয়া হয়। তবে রাজ্য নেতৃত্ব এবিষয়ে কী সিদ্ধান্ত নেন, সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে তৃণমূলের জেলা নেতৃত্ব।

পুরাতন মালদা শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিভূতিভূষণ ঘোষ জানান, বহু জায়গা থেকে শোনা যাচ্ছে যে, মালদা জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ সরলা মুর্মু আবার দলে ফিরতে চাইছেন। তবে বিভূতিভূষণ আরও জানান, তৃণমূল কংগ্রেস সরলা মুর্মুকে যথেষ্ট সম্মান জানিয়েছিল। মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি করা হয়। বর্তমানে তিনি মৎস্য কর্মাধ্যক্ষ। তাঁকে আরও বেশি সম্মান জানানোর জন্য তৃণমূলের তরফে প্রার্থী করা হয় ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে। কিন্তু এরপরেও তিনি দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন। তৃণমূল সভাপতি জানান, এই বিষয়ে তাঁর কিছু করার নেই। যা সিদ্ধান্ত নেবেন মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মৌসুম নূর এবং সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।