কোন রহস্য উদ্ঘাটনের নির্দেশ দিলেন শতাব্দী?

185

রামপুরহাট: মানুষের দাবি মতো উন্নয়ন করার পরেও রামপুরহাটের মানুষ কেন তৃণমূলের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন তা পর্যালোচনা করা প্রয়োজন। বুধবার করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে আলোচনা করতে এসে এমনটাই বললেন বীরভূমের সাংসদ শতাব্দী রায়।

তিনদিন ধরে বীরভূমের বিভিন্ন পুরসভা ঘুরে এলাকার সমস্যা, করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে আগাম কী প্রস্তুতি নেওয়া যায় সে বিষয়ে রামপুরহাট পুরসভায় আলোচনায় বসেন সাংসদ শতাব্দী রায়। উপস্থিত ছিলেন রামপুরহাট বিধায়ক আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, রামপুরহাট স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান, পুরপ্রশাসক মীনাক্ষী ভকত সহ প্রশাসক বোর্ডের কো-অর্ডিনেটররা। বৈঠক শেষে শতাব্দী বলেন, ‘করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে আলোচনা হল। মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক কিছু দাবি জানিয়েছেন। এছাড়া বেশ কিছু দাবি উঠে এসেছে। ফিরে গিয়ে হিসেব নিকেশ করে জিনিসপত্র পাঠাব।’

- Advertisement -

বিধানসভা ভোটে রামপুরহাট পুরসভায় তৃণমূলের পরাজয় প্রসঙ্গে সাংসদ বলেন, ‘ছ’ফুঁকো সংস্কার থেকে রামপুরহাট শহরের উন্নয়ন শুরু করেছিলাম। এরপর সাংসদ এবং বিধায়ক তহবিলের টাকায় অনেক উন্নয়ন হয়েছে। কিন্তু তারপরও মানুষ কেন আমাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন তা পর্যালোচনা করা প্রয়োজন। তিনবার সাংসদ হয়েছি। কিন্তু শহর থেকে হেরেছি। এবার বিধানসভায় আশিসবাবু হেরেছেন। এর রহস্য কী, তা তদন্ত করতে হবে। শহরের মানুষ কী ছাইছেন, তা খুঁজে বের করতে হবে।’ পাশাপাশি তিনি জাতীয় সড়কের বেহাল দশা নিয়ে সংসদে জানাবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এর আগে সংসদে রাস্তা সংস্কারের দাবি তোলা হয়েছিল। তারপর সংস্কার শুরু হয়েছিল। কিন্তু তারপর ফের বন্ধ হল কেন তা জানতে চাইব।’