সমর্থকদের জন্য জিততে চায় এসসি ইস্টবেঙ্গল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : শেষ ম্যাচে সম্মানরক্ষার লড়াই। এসসি ইস্টবেঙ্গল তো বটেই, ওডিশা এফসির কাছেও। দুপক্ষেরই প্রতিযোগিতা থেকে নতুন করে পাওয়ার কিছু নেই। তবে শেষ ম্যাচটা জিতে সম্মানজনক ভাবে আইএসএল শেষ করার লড়াইয়ে রয়েছে দুই প্রতিবেশী রাজ্যের দুই ক্লাব।

লাল-হলুদ শিবির শেষ কবে এত নীচে শেষ করেছে জানা নেই। পরিসংখ্যান বলছে, ২০০৯-১০ আই লিগে ১৪ দলের মধ্যে নয়ে শেষ করেছিল। তারপর গত এক দশকে প্রথম চারের বাইরে যায়নি কখনও। ধারাবাহিকতার অভাব শুরু থেকেই জড়িয়ে থাকল রবি ফাওলারের দলের সঙ্গে। বিচ্ছিন্নভাবে ২-১টা ম্যাচ ছাড়া খারাপফুটবলই পাওয়া গিয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গলের কাছ থেকে। বিশেষ করে গোলমুখে ব্যর্থতা ডুবিয়েছে প্রায় প্রতি ম্যাচেই। একইসঙ্গে ফিটনেসের অভাবও ধরা পড়েছে শেষদিকে গোল হওয়ার প্রবণতা থেকে। পরবর্তী সময়ে ব্রাইট এনুবাখারে এসে দু-একটি ম্যাচে দুর্দান্ত গোল করে সাড়া ফেলে দিলেও, তাঁরও যে কিছু চোরা চোট রয়েছে সেটা স্পষ্ট হয়ে যায়। এছাড়া রবি ফাওলারের ভারতীয় স্ট্রাইকাররা, জেজে, বলবন্ত, হরমনপ্রীত, বিনীথরা একটিও গোল করতে পারেননি। এর মাধ্যমে ভারতীয় ফুটবলার নেওয়ার ক্ষেত্রে দৈন্যদশাই প্রকট করেছে। বরং পরবর্তী সময়ে রাজু গায়কোয়াড়, সার্থক গোলুইরা আসায় নড়বড়ে ডিফেন্স কিছুটা পোক্ত হয়।

- Advertisement -

ওডিশার কাছে এই ম্যাচ বদলারও। প্রথম লেগে এই দলের বিরুদ্ধেই আইএসএলে প্রথম জয় পেয়েছিল ফাওলার ব্রিগেড। সেই ইতিহাস মনে রাখলেও শেষ ম্যাচে কিছুটা ব্যাকফুটে থেকেই নামবে ওডিশা। লিগে একডজন ম্যাচে হার, জয় মাত্র একটায়। দলের বিড়ম্বনা বাড়িয়েছে তারকা ফুটবলার মার্সেলিনহোর সঙ্গে কোচ স্টুয়ার্ট ব্যাকস্টেরের বিবাদ, মার্সেলিনহোর দল বদল ও কুকথা বলে ব্যাকস্টারের ছাঁটাই হওয়ার মতো একের পর এক সমস্যা। এরমধ্যেই গত ম্যাচে মুম্বই সিটি এফসি ৬ গোল দিয়েছে তাদের। ৩০ মিনিটে তারকা ডিফেন্ডার স্টিভন টেলর উঠে যাওয়ার পর সামান্যতম প্রতিরোধ দেখাতে পারেননি বাকিরা। শনিবার ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে তিনি খেলবেন কি না স্পষ্ট নয়। অবশ্য খেললেই যে বিশেষ তফাত হবে না, তা ১৯ ম্যাচে ৩৯ গোল খাওয়া থেকেই স্পষ্ট।

ওডিশার বিরুদ্ধে নামার আগেও সময় না পাওয়ার পুরোনো অজুহাত ফাওলারের মুখে, মরশুমের শুরুতে আমরা প্রস্তুতির জন্য একেবারেই সময় পাইনি। ট্রেনিং সেভাবে হয়নি, মানসিক প্রস্তুতিরও সময় মেলেনি। তার পরেও সকলে নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছে। তবে ফুটবলারদের বলেছি, সমর্থকদের জন্য শেষ ম্যাচটা জিততে হবে। শনিবার রাজু, স্কট নেভিল ছাড়া বাকি সকলকেই পাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল। তবে নর্থইস্ট ম্যাচের মতো দলে আটটা পরিবর্তন করার মতো আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত ফাওলার আর নেবেন না বলেই মনে করা হচ্ছে।