ফাওলারের না থাকাটা ধাক্কা, মানছেন গ্র্যান্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : রবি ফাওলারের শাস্তি নিয়ে ক্লাব ও বিনিয়োগকারী সংস্থার মধ্যে দড়ি টানাটানি অব্যাহত। সেই জটিল পরিস্থিতির মধ্যে রবিবার জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে মাঠে নামছে এসসি ইস্টবেঙ্গল।

শেষ পাঁচ ম্যাচে জয়হীন দল। প্লে অফের আশাও প্রায় অস্তমিত। এরমধ্যে মরার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে নেমে এসেছে কোচ ফাওলারের নির্বাসন। ভারতীয় রেফারিদের উদ্দেশ্যে আপত্তিজনক মন্তব্যের জেরে চার ম্যাচ নির্বাসিত হয়েছেন লাল-হলুদের ব্রিটিশ কোচ। ফলে রবিবার ম্যাচ ডাগআউটে নয়, গ্যালারিতে বসেই দেখতে হবে ফাওলারকে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব সামলাবেন সহকারী টনি গ্রান্ট। ডাগআউটে ফাওলারের না থাকা যে বড় ধাক্কা মানছেন তিনি। ড্যানি ফক্সদের সহকারী কোচের কথায়, ম্যাচ চলাকালীন ডাগআউটে তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তগুলি রবিই নেয়। ফলে ওর না থাকাটা আমাদের কাছে ফ্যাক্টর।

- Advertisement -

শেষ যে ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেছিলেন দেবজিৎ মজুমদাররা সেই ৯ জানুয়ারি বেঙ্গালুরু এফসির বিরুদ্ধেও ডাগআউটে ছিলেন না লিভারপুল গড। ফলে ফাওলারের না থাকা শাপে বর হতে পারে, আশা করছেন লাল-হলুদের সমর্থকদের একাংশ। তবে সেই আশাবাদী মুখগুলি সংখ্যা নেহাতই নগণ্য। গত ম্যাচে সুনীল ছেত্রীদের বিরুদ্ধে ভরাডুবির পর অ্যান্থনি পিলকিনটন, জাঁক মাঘোমাদের ওপর থেকে ভরসা উঠে গিয়েছে মশাল জনতার। যদিও দলের বেহাল দশার পিছনে অস্বাভাবিক কিছু খুঁজে পাচ্ছেন না ফাওলারের ডেপুটি। বরং নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ক্লাব ম্যানেজমেন্টের ঘাড়ে দায় চাপাতে দেখা গেল তাঁকে। প্রাক মরশুমে প্রস্তুতির অভাবকে দায়ী করে বলে গেলেন, মাত্র দুসপ্তাহের প্রস্তুতিতে আমরা আইএসএলে যোগ দিয়েছি। তারপরেও দলের যা পারফরমেন্স তা খারাপ বলা যাবে না। আমরা সাত ম্যাচ অপরাজিত ছিলাম। কেরালা ব্লাস্টার্সের মতো দল যারা লিগ শুরুর আগে দীর্ঘসময় প্রস্তুতির সুযোগ পেয়েছে, তারা আমাদের থেকে মাত্র ২ পয়েন্টে এগিয়ে।

দিনকয়েক আগে ক্লাব কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে টুইটারে মুখ খুলে শিরোনামে এসেছিলেন গ্র্যান্ট। এদিনও ফের বললেন, মাঠের বাইরে অনেক ব্যাপার নিয়ে সমস্যা রয়েছে। সেটা শুধু আমাদের ক্লাবে নয়, অন্যান্যদেরও রয়েছে। অনেক কোচ, ম্যানেজার এবার ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হয়েছেন। তবে যাই ঘটুক, তার প্রভাব ফুটবলারদের ওপরে পড়ছে। বাইরে থেকে সমালোচনা করা খুব সহজ। ভুলে গেলে চলবে না আমরা দীর্ঘসময় ধরে জৈব সুরক্ষা বলয়ে বন্দি। সেই পরিবেশে মানিয়ে নেওয়া এত সহজ নয়।

রবিবারে লাল-হলুদের প্রতিপক্ষ জামশেদপুর এফসিও লিগ টেবিলে ভালো জায়গায় নেই। রক্ষণের সমস্যা মেটাতে এটিকে মোহনবাগান থেকে বরিস সিংকে দলে নিয়েছে জামশেদপুর। ১৫ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের সাত নম্বরে ওয়েন কোলের দল। সেখানে পাঁচ পয়েন্টে পিছিয়ে দশ নম্বরে এসসি ইস্টবেঙ্গল। তবে নিজেদের সমস্যায় জর্জরিত টনি গ্র্যান্টের ভাবার সময় নেই প্রতিপক্ষকে নিয়ে। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে তিন সপ্তাহের জন্য বাইরে হরমনপ্রীত সিং। তবে সুস্থ রাজু গায়কোয়াড়, লোকেন মিতেই, দলের সঙ্গে পুরোদমে অনুশীলন করেছেন মুম্বই সিটি এফসি থেকে লোনে সদ্য যোগ দেওয়া সার্থক গলুই, সৌরভ দাস।