বিজেপি নেতা মদন ঘোড়ুইয়ের দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত

231
প্রতীকী

কলকাতা: পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুর থানা এলাকার বিজেপি নেতা মদন ঘড়ুইয়ের মৃতদেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত হল উত্তর কলকাতার আরজিকর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। ৩ নভেম্বর কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই নির্দেশ মোতাবেক ময়নাতদন্ত হয়েছে। দেহ মৃত ব্যক্তির দাদা স্বপন ঘড়ুইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। মৃত্যুর ২৩ দিন পর এদিন বাড়ি সংলগ্ন শ্মশানে মদনবাবুর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে।

পুলিশ মদনবাবুকে সেপ্টেম্বর মাসে গ্রেপ্তার করেছিল। গ্রেপ্তারের পরপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে আদালতের নির্দেশে তাঁকে জেল হেপাজতে পাঠানো হয়। ১৩ অক্টোবর কলকাতার রাম রিক হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর মরদেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল পরিবার। হাইকোর্টের তরফে দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়।

- Advertisement -

অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও পুলিশ দেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত না করে তা টানা ১০ দিন ফেলে রেখেছিল। ৩ নভেম্বর কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ ৫ নভেম্বরের মধ্যেই দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেয়। এদিন তা করা হয়।

উল্লেখ্য, বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ কলকাতায় এলে মদনবাবুর স্ত্রী ও দাদা কলকাতা বিমানবন্দরে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন ও এব্যাপারে অভিযোগ জানান।