স্পেনের ইউরো দলে রিয়ালের কেউ নেই

মাদ্রিদ : ইতিহাসে প্রথমবার।

স্পেনের জাতীয় দলে জায়গা পেলেন না রিয়াল মাদ্রিদের কোনও ফুটবলার। এমন কি বাদ পড়েছেন অধিনায়ক সার্জিও র‌্যামোস স্বয়ং। সোমবার ইউরো কাপের জন্য স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন স্পেনের কোচ লুইস এনরিকে। উয়েফার নিয়মে ২৬ জনকে নেওয়ার সুযোগ থাকলেও এদিন ২৪ জনের নাম জানিয়েছেন তিনি। ঠাঁই পাননি চলতি মরশুমে রিয়ালের ডিফেন্সকে নেতৃত্ব দেওয়া নাচো ফার্নান্ডেজেও। সদ্য ফ্রান্স ছেড়ে স্পেনের নাগরিকত্ব নেওয়া ডিফেন্ডার এমেরিক লাপোর্তে সরাসরি ইউরোর স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন। ইউরোয় গ্রুপ ই-তে সুইডেন, স্লোভাকিয়া ও পোল্যান্ডের সঙ্গে রয়েছে স্পেন। তাদের প্রথম ম্যাচ ১৪ জুন, বনাম সুইডেন।

- Advertisement -

স্পেনের স্কোয়াড : (গোলরক্ষক) উনাই সিমোন, ডেভিড ডে গিয়া, রবার্ট স্যাঞ্চেজ; (ডিফেন্ডার) পাউ টোরেস, এমেরিক লাপোর্তে, দিয়েগো লরেন্তে, এরিক গার্সিয়া, জর্ডি আলবা, হোসে গায়া, সিজার আজপিলিকুয়েতা; (মিডফিল্ডার) সের্জিও বুসকেটস, রদ্রি, থিয়াগো আলকান্তারা, পেদ্রি, মার্কোস লরেন্তে, কোকে, ফ্যাবিয়ান রুইজ; (ফরোয়ার্ড) জেরার্ড মোরেনো, ফেরান টোরেস, মাইক ওয়ার্জাবল, আলভারো মোরাতা, ড্যানি ওলমো, পাবলো সারাবিয়া, অ্যাডমা ট্রাওরে।

ইউরোর মতো প্রতিযোগিতায় র‌্যামোসের দলে না থাকা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। চোটের জন্য মরশুমের দ্বিতীয় ভাগে ক্লাবের জার্সিতে মাত্র ৭টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। এমনকি ইউরোর সপ্তাহ তিনেক আগেও তিনি ফিট কি না তা স্পষ্ট নয়। এই কারণেই তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হয়েছে। যদিও গোটা মরশুমে ১২ ম্যাচে ৮৫৮ মিনিট মাঠে কাটানো গার্সিয়াকে কেন দলে নেওয়া হল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন রিয়াল ও র‌্যামোস সমর্থকরা। পাশাপাশি গার্সিয়া, তোরেসের মতো লাপোর্তেরও আন্তর্জাতিক মঞ্চে তেমন অভিজ্ঞতা নেই। এমন অবস্থায় ইউরোর মতো কঠিন মঞ্চে র‌্যামোসের না থাকা বড় পার্থক্য গড়ে দেবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। জাতীয় দলের জার্সিতে একটি বিশ্বকাপ ও দুটি ইউরো জিতেছেন র‌্যামোস, খেলেছেন ১৮০ ম্যাচ।