করোনার জেরে বন্ধ হল গৌড় সহ একাধিক পর্যটনকেন্দ্র

190

গাজোল: দেশে বাড়তে থাকা করোনা সংক্রমণের জেরে বেশকিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতীয় পুরাতত্ত্ব বিভাগের অধীনে থাকা বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্রে জনসাধারণের প্রবেশ ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় পুরাতত্ত্ব বিভাগের সেই নির্দেশিকা ইতিমধ্যেই এসে পৌঁছেছে বিভিন্ন অফিসে। এরপরই জনসাধারণের জন্য বন্ধ করা দেওয়া হয়েছে মালদা জেলার গৌড় এবং আদিনা পান্ডুয়া সহ বিভিন্ন ঐতিহাসিক পর্যটনকেন্দ্রের দরজা। আগামী ১৫ মে পর্যন্ত এই পর্যটনকেন্দ্রগুলি বন্ধ রাখা হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে যথেষ্ট প্রচার না থাকার কারণে আজও বহু পর্যটকদের এসে ঘুরে যেতে হয়েছে। প্রসঙ্গত, গত বছর করোনা পরিস্থিতির জেরে ১৭ মার্চ থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছিল এই সমস্ত ঐতিহাসিক স্থান।

ভারতীয় পুরাতত্ত্ব বিভাগের এক কর্মী লালচাঁদ হালদার জানান, কোভিড পরিস্থিতির জন্য আপাতত আদিনা মসজিদ বন্ধ রাখার নির্দেশ এসেছে। পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে এই সমস্ত জায়গা। আদিনা মসজিদের পাশাপাশি একলাখী মসজিদ বা গোলঘর, সোনা মসজিদ বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে এই ঐতিহাসিক পর্যটনকেন্দ্রগুলি হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম ক্ষতির মুখে পড়েছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। আদিনা মসজিদ এলাকার ব্যবসায়ীরা জানান, পর্যটকদের উপর নির্ভর করেই এই দোকান চলে। পর্যটকদের আসা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাঁদের ব্যবসায় অনেকটাই ভাঁটা পড়বে বলে আশঙ্কা করছেন। এতে করে কীভাবে সংসার চলবে তা ভেবে পাচ্ছেন না তাঁরা।

- Advertisement -

এপ্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতির জেরে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া-র তরফে সমস্ত পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আপাতত আগামী ১৫ মে পর্যন্ত এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।