নয়াদিল্লি, ৩০ এপ্রিলঃ আগামী ২৪ ঘণ্টায় আরও শক্তি বাড়িয়ে এগিয়ে আসছে ‘ফণী’। এমনটাই পূর্বাভাস দিল মৌসম ভবন৷ অন্ধ্র উপকূল হয়ে ওডিশা উপকূলে ঢুকবে এই ঝড়৷ বুধবার তামিলনাড়ু উপকূলে পৌঁছবে৷ ভারত মহাসাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায় তা শক্তি বাড়িয়ে তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে ঘনীভূত হয়েছে। মৌসম ভবনের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, ৪ মে ঘূর্ণিঝড় ওডিশার চিল্কার কাছাকাছি পৌঁছবে। তার পর কোন দিকে যাবে, তা এখনও সুস্পষ্ট নয়। মৎস্যজীবীদেরও সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

‘ফণী’-র প্রভাবে দুর্যোগের মুখে পড়তে পারে বাংলাও। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফে আগামী ৩ মে দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। আগামী ৩, ৪, ৫ মে রাজ্যের উপকূল ও লাগোয়া জেলায় বিক্ষিপ্ত ভারী বৃষ্টির পাশাপাশি ২ মে থেকেই উপকূলে ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার বেগে হাওয়া বইতে পারে বলে আশঙ্কা করছে আবহাওয়া দপ্তর। যদিও আবহবিদরা জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় এখনও অনেকটাই দূরে (চেন্নাই থেকে ৮১০ কিলোমিটার) রয়েছে। এখনও অনেকটা পথ অতিক্রম করতে হবে।