নিকাশি উপচে পচা জল হাটে, দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ ব্যবসায়ীরা

307

সুকমল ঘোষ, ফালাকাটা : ফালাকাটা হাটখোলার অলিগলিতে নিকাশিনালা উপচে পড়ছে পচা জল। দোকানের  সামনে দিয়ে পচা জল বয়ে চলায় দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ কয়েশো হাট ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার সাপ্তাহিক হাটের দিনে এই নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন ফালাকাটা হাটের ব্যবসায়ীরা। ক্ষুব্ধ হাট ব্যবসায়ীরা হাটখোলা মেইন রোডের কলাহাটি এলাকার নিকাশিনালার মুখ বালি ফেলে সিল করে দেন। বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড করে আটকে দেওয়া হয় হাটখোলা মেইনরোডের যাতায়াতের রাস্তাও।

ফালাকাটা পুরাতন চৌপথি থেকে একটি নিকাশিনালা হাটখোলা রোড বরাবর মহাকালবাড়ি হয়ে মুজনাই নদীতে গিয়ে মিশেছে। ওই নালার সঙ্গে হাটের আরও ৪-৫টি নালার যোগ রয়েছে। হাট ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, আলিপুরদুয়ার জেলাপরিষদের অধীন ফালাকাটা হাটের নালাগুলি কয়েবছর ধরে সাফাই করা হয় না। সেগুলির মুখ প্রায় সবই বন্ধ হয়ে গিয়েছে। ফলে মানুষের বাড়ির নোংরা জলও নিকাশিনালা উপচে হাটের অলিগলিতে ঢুকে দোকানের সামনে জমে থাকছে। ফলে দুর্গন্ধে দোকানে বসে থাকতে পারছেন না হাটের ব্যবসায়ীরা। নিকাশিনালার পচা জল ডিঙিয়ে হাটখোলার ভেতরে কোনো দোকানে আসতেও চাইছেন না ক্রেতারা। ফলে পুজোর মরশুমে লাটে উঠেছে ব্যবসাও। এই পরিস্থিতিতে ক্ষোভে ফুঁসছেন হাট ব্যবসায়ীরা। হাটের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, সমস্যার কথা জেলাপরিষদ এমনকি স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত ও ব্লক প্রশাসনকে বারবার জানিয়ে কাজ হয়নি। তার জেরে ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা হাটখোলা রোডের মূল নিকাশিনালার মুখ বালির স্তূপ ফেলে বন্ধ করে দেন। এরপর হাটখোলা রোডে বাঁশের ব্যারিকেড বেঁধে রাস্তা বন্ধ করে দেন। খবর পেয়ে ফালাকাটা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ফোনে হাট ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেন জেলাপরিষদ সদস্য সন্তোষ বর্মন। পরে প্রশাসন ও জেলাপরিষদ সদস্যের আশ্বাসে হাটখোলা রোডের ব্যারিকেড খুলে দেওয়া হয়। হাট ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক রতন বর্ধন বলেন, হাটের ওই সমস্যা দ্রুত না মিটলে আমরা ফের আন্দোলনে শামিল হব।

- Advertisement -

জেলাপরিষদ সদস্য সন্তোষ বর্মন বলেন, জেলাপরিষদে যোগাযোগ করেছি। জলনিকাশির ব্যবস্থা করে সামযিক ওই সমস্যা মেটানো হবে। এজন্য জেলাপরিষদের জরুরি কাজের তহবিল থেকে কুড়ি হাজার টাকার অনুমোদন মিলেছে। বুধবারই জরুরি ভিত্তিতে ওই কাজ শুরু হয়ে যাবে। তবে স্থায়ী সমাধানের জন্য পূর্ণাঙ্গ কাজ করাতে অনেক টাকার প্রয়োজন। পরে প্ল্যান এস্টিমেট পাঠিয়ে ওই কাজ রূপায়ণ করা হবে।