শিখা মিত্র তৃণমূলেই আছেন, দাবি সোমেন পুত্রের

195

কলকাতা : প্রয়াত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্রের স্ত্রী শিখা মিত্রের তৃণমূলে যোগদান করা নিয়ে যে জল্পনা উঠেছে তাকে পুরোপুরি উড়িয়ে দিলেন তাঁর ছেলে রোহন মিত্র। এদিন তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দেন যে, তাঁর মায়ের তৃণমূল কংগ্রেসে নতুন করে যোগদানের কোনও কারণ নেই। কারণ তার মা তৃণমূল কংগ্রেসের হাত ধরেই রাজনীতিতে প্রবেশ করেছিলেন। শুধু তাই নয়, তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়কও ছিলেন। পরবর্তী পর্যায়ে কিছু কারণের জন্য তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক পদ থেকে পদত্যাগ করেন। পরবর্তী পর্যায়ে তার বাবা সোমেন মিত্র অন্য দলে যোগদান করলেও তার মা কোনও দলে যোগদান করেননি। তাই নূতন করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার কোন কারণ আছে বলে তাঁরা মনে করেন না।

এদিন তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দেন যে, সম্প্রতি দু-দুবার তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর মাকে ফোন করেছিলেন। আর তার জন্য তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কৃতজ্ঞ। মুখ্যমন্ত্রী তাঁর মাকে জানিয়ে দিয়েছিলেন যে প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে না হলেও বঙ্গ জননীতে তাকে একটি পদ দেওয়ার কথা। সেই মতো মালা রায়ের সঙ্গে তাঁদের কথা হয়েছে। যদিও, শিখা দেবী তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক পদ থেকে পদত্যাগ করার পর পরই তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সদস্যের পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন। সে ব্যাপারে করা এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান যে, তৃনমূল নেত্রী যদি মনে করেন তাঁর মাকে নতুন করে তৃণমূলের সদস্য পদ নিতে হবে, তাহলে সে বিষয়ে তারা তখন চিন্তাভাবনা করবেন। তবে এই মুহূর্তে নিজের রাজনীতিতে যোগদান করার ইচ্ছে নেই বলে জানিয়েছেন রোহন। তবে অদূর ভবিষ্যতে কি হবে তা তিনি এই মুহূর্তে বলতে নারাজ।

- Advertisement -

অপরদিকে এদিন শিখা দেবী জানান যে, কংগ্রেস ঘরানায় তাঁর জন্ম। আর কংগ্রেসী রাজনীতির মধ্যেই তার পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন। তাই বিজেপির মত কোনও দলের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করাটা তাদের পক্ষে কোনও মতেই সম্ভব নয়। তৃণমূল কংগ্রেস যেহেতু কংগ্রেস ঘরানারই একটি দল, তাই তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করতে তাঁর আগেও যেমন কোনও আপত্তি ছিল না, ভবিষ্যতেও থাকবে না। উল্লেখ্য অধীররঞ্জন চৌধুরী দ্বিতীয়বারের জন্য প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি হওয়ার কিছুদিন পর থেকেই সোমেন মিত্রের পরিবারের সঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেসের দূরত্ব বাড়ে। শুধু তাই নয়, বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরপরই মাস দুয়েক আগে কংগ্রেসের সমস্ত পদ থেকে পদত্যাগ করেন সোমেন পুত্র রোহন মিত্র। আর তখন থেকেই একটা গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল তবে কি সোমেন জায়া ও পুত্র তৃণমূল কংগ্রেসের যোগ দিচ্ছেন? এরই মাঝে বিধানসভা নির্বাচনের সময় বিজেপির পক্ষ থেকে শিখা দেবীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু শিখা মিত্রের অনুমতি ব্যতিরেকেই তাঁকে চৌরঙ্গী কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে দেয় বিজেপি।