সালিশি সভায় গোলাগুলি, মৃত ১

162

কালিয়াচক: দুই ভাইয়ের বিবাদের সমাধান করতে গিয়ে সালিশি সভায় চলল গুলি। গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে একজনের। জখম আরও এক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার কালিয়াচক থানার মোজমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের নারায়ণপুর গ্রামে। ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম শরিফ বিশ্বাস (২৭)। বাড়ি মোজমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের নারায়ণপুর গ্রামে। গুলিবিদ্ধ হয়ে জখম হয়েছেন সালাম বিশ্বাস।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই ভাই তুহুর বিশ্বাস ও ফানু বিশ্বাসের মধ্যে বেশ কিছুদিন থেকেই গণ্ডগোল চলছিল। মঙ্গলবার দুই পক্ষের মধ্যে সমস্যার সমাধান করতে বসে সালিশি সভা। সেই সালিশি সভাতেই দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়। ধস্তাধস্তি, হাতাহাতির পরে শুরু হয় গোলাগুলি। তবে ভিড়ের মধ্যে কে বা কারা গুলি চালিয়েছে, যদিও সেবিষয়ে কেউ সঠিক কিছু বলতে পারছেন না। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, ফানু বিশ্বাসের লোকজনই গুলি চালিয়ে থাকতে পারে। কারণ গুলিতে তুহুর বিশ্বাসের এক ছেলে সালাম আহত হয়েছেন ও নাতি শরিফের মৃত্যু হয়েছে।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, তুহুর বিশ্বাস ও ফানু বিশ্বাসের মধ্যে টাকা-পয়সার লেনদেন নিয়ে চলা বিবাদ মেটাতেই এদিন সালিশি সভা বসেছিল। আরেকটি সূত্র জানাচ্ছে, তুহুর বিশ্বাস বিভিন্ন অবৈধ কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে নিজের প্রাধান্য বজায় রেখে চলছেন। কিন্তু তাঁর ভাই ফানু বিশ্বাসের লোকজন নাকি পুলিশের ইনফর্মার হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে কাজ করে। এই সমস্ত অভিযোগের ফলে দুই ভাইয়ের মধ্যে সমস্যা আরও বেড়ে যায়। সমস্যার সমাধান করতেই এদিন সকালে সালিশি সভা বসে। সেই সালিশি সভায় দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়। চলে গুলিও।

ঘটনাস্থল থেকে সালাম ও শরিফ দুজনকেই উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় সিলামপুর গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠানো হয়। দুজনকেই তড়িঘড়ি সেখান থেকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে শরিফকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এদিকে, মালদা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন সালাম।

ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় কালিয়াচক থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। সেই সময়ই সেখান থেকে পালিয়ে যায় দু’পক্ষের লোকজন। তবে ঘটনা প্রসঙ্গে দুই পরিবারের লোকজন কিছু জানাতে নারাজ।

মোজমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আফরোজা খাতুন বলেন, ‘তুহুর বিশ্বাস ও ফানু বিশ্বাস দুই ভাই। ওদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে ঝামেলা চলছিল। ঝামেলার মেটাতে এদিন সকালে সালিশি সভা বসে। সালিশি সভাতে দু’পক্ষের ধস্তাধস্তি, হাতাহাতির পরেই গুলি চলে বলে জানতে পেরেছি। তুহুর বিশ্বাসের এক ছেলে আহত হয়েছে ও নাতি শরিফের মৃত্যু হয়েছে।’

মোজমপুরের বাসিন্দা বর্তমান তৃণমূল কংগ্রেসের কালিয়াচক ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূলের সভাপতি রাহুল বিশ্বাস বলেন, ‘ঘটনাটি কোনও রাজনৈতিক ঘটনা নয়। দুই ভাইয়ের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। একজনের মৃত্যু হয়েছে। একজন আহত হয়েছে। তার ভিতরের বিষয় কি আছে, এ প্রসঙ্গে কিছু বলতে পারছি না।’