মিছিল পালটা মিছিলে বেহালার রাজপথে শোভন-বৈশাখী

109

বারুইপুর: একদিকে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গী করে বেহালার রাজপথে পদ্ম পতাকার ঘেরাটোপে মিছিল করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। ঠিক তখনই কৃষকদের আন্দোলনের সমর্থনে এবং কেন্দ্রীয় বাজেটের প্রতিবাদে রোড শো’য়ে হাঁটলেন শোভন পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়। একইদিনে তৃণমূল-বিজেপির এই জোড়া মিছিলকে কেন্দ্র করে সরগরম হয়ে উঠল বেহালা। মঙ্গলবারের এই ঘটনায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে যান চলাচল। ভোগান্তির শিকার হন আমজনতা।

তৃণমূলের মিছিল শুরু হয় বেহালার ২৯ পল্লী থেকে। নেতৃত্ব দেন তৃণমূলের মহাসচিব তথা বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এদিনের এই মিছিল শেষ হয় ঠাকুর পুকুর এলাকায়। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে পার্থবাবু বলেন, ‘বেহালার মানুষের অন্তরে রয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সুতরাং তাঁদের আর নতুন করে কিছু বলার নেই।’ অপরদিকে শোভন পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের কটাক্ষ, ভোটে জেতার পর বিগত তিন বছর শোভন চট্টোপাধ্যায় বেপাত্তা হয়ে গিয়েছিলেন এলাকা থেকে। এবার তাঁকে আর বেহালার মানুষ একটিও ভোট দেবেন না।

- Advertisement -

অন্যদিকে এদিন বিজেপির মিছিলও ছিল নজরকাড়া। শোভন-বৈশাখীকে সামনে রেখে চলে বিরাট বাইক মিছিল। এরপরে একটি রোড শো’য়ে অংশ নেন তাঁরা। ঠাকুরপুকুর থ্রি-এ বাস স্ট্যান্ডে শেষ হয় সেই রোড শো। একটি পথসভা করা হয়। সেই সভায় শোভনবাবু ছাড়াও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিজেপির অন্যান্য নেতারা ভাষণ দেন।