পুরসভার অভিযান বন্ধ, অবাধে ফুটপাথ দখল

প্রসেনজিৎ সাহা, দিনহাটা : করোনা সংকটে দখলদারির বিরুদ্ধে পুরসভার অভিযান বন্ধ রয়েছে। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে দিনহাটার মূল রাস্তার ধারে ফুটপাথ দখল চলছে। শহরের প্রাণকেন্দ্র পাঁচমাথার মোড় থেকে রংপুর রোড, সাহেবগঞ্জ রোড, বলরামপুর রোড সহ একাধিক জায়গায় নিত্যদিন যানজট লেগেই থাকছে।

কোথাও ফুটপাথ দখল করে ফল বিক্রি হচ্ছে, আবার কোথাও ফুটপাথে গাড়ি মেরামত চলছে। রাস্তা দখলের জেরে অতিষ্ঠ মানুষ পুরসভার অভিযানের দাবি তুলেছেন। দিনহাটা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য শুভময় চক্রবর্তী বলেন, পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান বিশেষ কারণে বাইরে আছেন। তিনি ফিরলে ফুটপাথ দখলের বিরুদ্ধে অভিযান নিয়ে অবশ্যই আলোচনা হবে।

- Advertisement -

গত বছর পুরসভার চেয়ারম্যান উদয়ন গুহর নেতৃত্বে দিনহাটা শহরের পাঁচমাথার মোড়ের ফুটপাথকে দখলমুক্ত করা হয়েছিল। ফুটপাথ দখল করে সাজানো পসরা পুরসভা বাজেয়াপ্ত করে। কিন্তু গত কয়েকমাস ধরে করোনা সংক্রমণের কারণে পুরসভার তরফে ফুটপাথ দখলমুক্ত রাখতে কোনও অভিযান করা হয়নি। আর এই সুযোগকে বেশ কিছু ব্যবসায়ী কাজে লাগাচ্ছেন। শহরের বাসিন্দাদের কথায়, দিনহাটায় ফুটপাথ সমস্যা নতুন নয়।

প্রতি পুর নির্বাচনে নেতারা আশ্বাস দেন, শহরকে যানজটমুক্ত রাখা হবে। ফুটপাথ দখলমুক্ত করা হবে। কিন্তু বাস্তবে এর কোনোটাই হয়নি। বরং পুরসভার নাকের ডগায় ফুটপাথ দখল বেড়েছে। বেশ কিছু ব্যবসাযীর দোকান মূল রাস্তা থেকে বেশ কিছুটা দূরে হলেও তাঁরা ফুটপাথে পসরা রেখে দিচ্ছেন। এর ফলে বাসিন্দারা মূল রাস্তা দিয়ে হাঁটতে বাধ্য হচ্ছেন। যার জেরে দুর্ঘটনা বাড়ছে।

শহরের বাসিন্দা বাবলা মিশ্র বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে দিনহাটার মূল রাস্তা সম্প্রসারিত হয়নি। অথচ প্রতি বছরই শহরে যানবাহনের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। পথচারীদের চলাচলের রাস্তা সংকুচিত। তার ওপর যদি ফুটপাথ দখল বাড়তে থাকে তবে পথচারীদের চলাচলই দায় হয়ে পড়বে।

আরেক বাসিন্দা দীপঙ্কর মালাকার বলেন, দিনহাটায় ফুটপাথ দখল নতুন সমস্যা নয়। কিন্তু কোনও দলই এই সমস্যা সমাধানে পরিকল্পনা অনুসারে কাজ করেনি। যার জন্য সমস্যা বেড়েই চলেছে। পুরসভার সমস্যাটি গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত। এক ফুটপাথ ব্যবসায়ী বলেন, আমাদের পক্ষে জায়গা কিনে দোকান দেওয়া সম্ভব নয়। তাই ফুটপাথে ব্যবসা করি। প্রশাসন যদি আমাদের জন্য কোনও ব্যবস্থা করে তবে ভালো হয়।