এটিএম লুট-অনলাইন প্রতারণা রুখতে কী পদক্ষেপ শিলিগুড়ি পুলিশের, জানুন

78

শিলিগুড়ি: এটিএম লুট রুখতে সতর্ক শিলিগুড়ি পুলিশ। সম্প্রতি কলকাতায় নিউ মার্কেট, যাদবপুর ও কাশীপুরে ৩টি এটিএম কাউন্টারে ঢুকে এটিএম না ভেঙে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে দুষ্কৃতীরা। শিলিগুড়িতে যাতে এধরণের ঘটনা না ঘটে সেজন্য মঙ্গলবার কমিশনারেটে বিভিন্ন ব্যাংকের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন পুলিশ কর্তারা। বৈঠকে এটিএমের নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি এদিন পুলিশের তরফে বেশকিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন ব্যাংকের প্রতিনিধিদের। এটিএম লুট রুখতে বিভিন্ন পদক্ষেপও করেছে কমিশনারেট।

পুলিশ জানিয়েছে, ব্যাংকের বাইরে অবস্থিত রক্ষীবিহীন এটিএমগুলিতে অ্যালার্মের ব্যবস্থা করতে হবে। দ্রুত যাতে ব্যবস্থা নেওয়া যায়, সেজন্য কন্ট্রোল রুমের নম্বর অটোডায়ালারে রাখতে হবে। রক্ষী রয়েছে এমন এটিএমগুলিতেও অ্যালার্মের ব্যবস্থা করতে হবে।

- Advertisement -

এটিএমে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরা যাতে ঠিকঠাক কাজ করে, সেদিকে নজর রাখতে হবে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে। কোনও কেসে প্রয়োজন পড়লে সেগুলির ফুটেজ পুলিশকে দিতে হবে।

এছাড়া ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে মানুষ যাতে খবর দিতে পারেন সেজন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের হেল্পলাইন নম্বর এটিএমগুলিতে রাখতে হবে। জিও লোকেশনের মাধ্যমে পুলিশ এটিএমের ওপর নজর রাখবে। প্রতিমাসে থানা এলাকা হিসেবে পর্যালোচনা বৈঠক হবে। সেখানে আইসি, ওসি ও ব্যাংকগুলির সব থেকে সিনিয়র প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। অনলাইন প্রতারণা রুখতে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের তরফে অডিও ও ভিজুয়াল মিডিয়ার মাধ্যমে সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হবে।

সাইবার সেলের ওসিকে নোডাল অফিসার করা হয়েছে। অনলাইন প্রতারণার কোনও খবর পেলেই ব্যাংকগুলি সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জানাবে। এটিএম লুট রুখতে কী পদক্ষেপ করা হচ্ছে, তা প্রতি এক বা দুদিনে ব্যাংকগুলির টেকনিক্যাল টিমের তরফে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের সিনিয়র আধিকারিকদের জানাতে হবে। পরবর্তী পর্যালোচনা বৈঠক শীঘ্রই হবে বলে কমিশনারেটের তরফে জানানো হয়েছে। সেইসঙ্গে এটিএম লুট রুখতে শিলিগুড়ি পুলিশের সদ্য গঠিত এসওজি (স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ)-ও সতর্ক রয়েছে।