রাতের অন্ধকারে সীমান্তে বিএসএফ চোরাকারবারি সংঘর্ষ, মৃত এক

386

সিতাইঃ গভীর রাতে চোরাকারবারী এবং বিএসএফ জওয়ানদের মধ্যে লড়াইয়ের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল কোচবিহারের সিতাই। চোরাকারবারীদের আক্রমণের জেরে জখম হয়েছেন এক বিএসএফ জওয়ান। আত্মরক্ষার স্বার্থে পাল্টা বিএসএফ জওয়ানের গুলিতে মৃত্যু হয় এক চোরাকারবারীর। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার গভীর রাতে কোচবিহারের সিতাই থানা এলাকার কৈমারি বিওপি এলাকায়। জানা গিয়েছে, গভীর রাতে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ওই এলাকায় কর্তব্যরত জওয়ানদের দিকে বাংলাদেশের দিক থেকে কিছু চোরাকারবারী ধেয়ে আসে। কর্তব্যরত জওয়ানদের ওপর বাঁশ ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে আক্রমণ চালায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে বাধ্য হয়ে জওয়ানরা শূন্যে গুলি চালায়। কিন্তু শেষমেশ আত্মরক্ষার্থে চোরাকারবারীদের লক্ষ্য করে জওয়ানরা গুলি ছোড়েন। তাতেই ওই চোরাকারবারীর মৃত্যু হয়। বুধবার সিতাইয়ের বিডিও অমিত কুমার মণ্ডল বিষয়টি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থলে যান। তিনি জানান, ওই ব্যাক্তির হাটু ও বুকে দুটি গুলির ক্ষত রয়েছে। এক বিএসএফ জওয়ান জখম হয়েছেন। পরে দিনহাটার এসডিপিও ত্রিদিব সরকার ঘটনাস্থলে যান এবং বিএসএফের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এবিষয়ে কথা বলেন। ইতিমধ্যে বিএসএফের পক্ষ থেকে সিতাই পুলিশের হাতে মৃতদেহ তুলে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি চোরাকারবারীদের ব্যবহৃত বাঁশ, দা ইত্যাদি ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া সামগ্রী থানায় জমা দেওয়া হয়েছে। সিতাই পুলিশ এদিন মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মাথাভাঙ্গা মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। কোচবিহারের এডিশনাল এসপি কুমার সানি রাজ বলেন, বিএসএফের পক্ষ থেকে থানায় একটি এফআইআর করা হয়েছে। পুলিশের ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।