ডব্লিউবিসিএস অফিসার হতে চায় চালসার সিতারা

রহিদুল ইসলাম, মেটেলি: চা বাগানের শ্রমিক মহল্লার আদিবাসী মেয়ে বাংলা মাধ্যমের বিদ্যালয়ে পড়ে উচ্চমাধ্যমিকে নজরকাড়া ফল করল। মেটেলি ব্লকের চালসা চা বাগানের গন্দ্রোব লাইনের চা শ্রমিক দীপক চিকবাড়াইক ও অঙ্গনওয়ারী কর্মী লক্ষী চিকবাড়াইকের একমাত্র কন্যা সিতারা চিকবাড়াইক এবারের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪১৬ নম্বর পেয়ে সবার নজর কেড়েছে। বিভিন্ন বিষয়ে সিতারার প্রাপ্ত নম্বর- বাংলা ৭৬, ইংরেজি ৮৫, ইতিহাস ৯০, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ৮৮, দর্শন ৭৭।

মাল আদর্শ বিদ্যাভবন থেকে সে এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। ভবিষ্যতে ডব্লিউবিসিএস অফিসার হয়ে মানুষের সেবা করতে চায় সে। মেয়ের এই সাফল্যে তাঁর পরিবার খুশি হলেও মেয়ের স্বপ্নপূরণ নিয়ে চিন্তিত তাঁরা। কারণ তার স্বপ্নপূরণের জন্য বহু টাকার দরকার। এত টাকা কোথা থেকে আসবে তা নিয়ে চিন্তিত তাঁরা।মেয়ের স্বপ্নপূরণের জন্য সরকারি সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে তার পরিবার।

- Advertisement -

সিতারার সাফল্যের কথা শুনে তাঁর বাড়িতে যান অখিল ভারতীয় আদিবাসী বিকাশ পরিষদের নেতারা। তাঁরাও সরকারিভাবে তাঁকে সাহায্য করার আবেদন জানান। সিতারা জানায়, আরও ভালো ফল আশা করেছিল। নম্বর একটু কম এসেছে। ভবিষ্যতে একজন ডব্লিউবিসিএসস অফিসার হয়ে মানুষের সেবা করতে চায় সে। কিন্তু তার জন্য বহু টাকার প্রয়োজন। সরকারি সাহায্যের আবেদন জানায় সে।

তার বাবা দীপক চিকবাড়াইক বলেন, বাগানের কাজ করি। ওর মা অঙ্গনওয়ারী কর্মী। একটি ছোট ছেলেও আছে। পারিবারিক যা আয়, তাতে মেয়ের স্বপ্নপূরণ করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। সরকারিভাবে সাহায্য করা হলে উপকৃত হব। অখিল ভারতীয় আদিবাসী বিকাশ পরিষদের মাল ব্লক সভাপতি অমরদান বাকলা বলেন, চা বাগানে থেকে বাংলা মাধ্যেমের বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করে সিতারার এই সাফল্য সত্যিই প্রশংসনীয়। আমরা আমাদের তরফে তাকে সাহায্য করার চেষ্টা করব। সরকারিভাবেও তাকে সাহায্য করা প্রয়োজন।