বাড়িতে বসেই স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড পেল শয্যাশায়ী মণিরুল

161

মুরতুজ আলম, সামসী: শুক্রবার বাড়ি থেকে বের হন এক ব্যক্তি স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড করার জন্য। কিন্তু বাইক দুর্ঘটনায় জখম হন তিনি। যার ফলে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড করার ক্যাম্পে যেতে পারেননি। এই খবর যায় পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে। পঞ্চায়েত প্রধান তৎক্ষণাৎ তাঁর বাড়িতে গিয়ে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড ওই জখম ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে পৌঁছে দিয়ে আসেন।

জখম ওই ব্যক্তির নাম মণিরুল রহমান। বাড়ি রতুয়া-১ ব্লকের ভাদো গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার গনিপুকুর গ্রামে। তিনি বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি থেকে বের হন ভাদো পঞ্চায়েত দপ্তরে যাওয়ার জন্য। সেখানে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ডের জন্য ফটো তোলার কথা ছিল তাঁর। পায়ে হেটে যাচ্ছিলেন তিনি। ভাদো পেট্রোল পাম্পের সামনে হটাৎ একটি বাইক তাঁকে সজোরে ধাক্কা মারে।ঘটনাস্থলেই তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাঁর হাত, পা ভেঙেছে। স্থানীয়রা সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসার জন্য রতুয়া ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। বর্তমানে মণিরুল রহমান বাড়িতে শয্যাশায়ী। দুর্ঘটনার ফলে তাঁর আর স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড করতে যাওয়া আর হয়নি।

- Advertisement -

ফোন মারফৎ বিষয়টি জানতে পারেন ভাদো জিপির প্রধান সেতারা বিবি। একটি মাত্র ফোনকলেই মণিরুলের বাড়িতে ছুটে যান প্রধানের হয়ে তাঁর স্বামী তোফায়েল আহমেদ ও পঞ্চায়েতের প্রতিনিধি দল এবং তাঁর বাড়িতেই বসে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড তৈরি করে দিয়ে তাঁর হাতে তুলে দিলেন প্রধানের স্বামী ও পঞ্চায়েতের প্রতিনিধিরা। আর তাই বাড়িতে বসে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড হাতে পেয়ে ভীষণই খুশি মণিরুল রহমান ও তাঁর পরিবার।