কৃষি বিল নিয়ে তৃণমূলের মোকাবিলা করতে রাজ্যে ৬ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

538

নিউজ ডেস্ক: কেন্দ্রের দুই কৃষি বিল নিয়ে প্রথম থেকেই সরব হতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। যার জেরে মোট ৮ জন সাংসদকে সাসপেন্ডও হতে হয়েছে। ইতিমধ্যেই দিল্লিতে যেমন তৃণমূলের প্রতিনিধিত্ব করছেন ডেরেক ও ব্রায়েন, তেমনই রাজ্যে সুর তীব্র থেকে তীব্র করেছেন স্বয়ং তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে, বিজেপি দলটাই যে কৃষক বিরোধী, এই প্রচারে বর্তমানে ব্যস্ত তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্বরা।

পাশাপাশি বিধানসভার ভোট রাজ্যের দোরগোড়ায় কড়া নাড়চ্ছে। আর তৃণমূল যাতে তাদের ইলেকশন ক্যাম্পেনে বিষয়টিকে হাতিয়ার না করে উঠতে পারে, তার জন্য উঠে পড়ে লাগল রাজ্য বিজেপি। প্রায় এক ডজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে বাংলায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বগণ।

- Advertisement -

বুধবার বিজেপি রাজ্য শাখার প্রতিনিধিরা সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে গিয়ে দেখা করেন। সেখানেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের মাঠে নামানোর সিদ্ধান্ত হয়। একই সঙ্গে ঠিক হয়েছে যে দলীয় কর্মীদের হত্যায় সিবিআই তদন্তের দাবি করবে বিজেপি। এই নিয়ে হাইকোর্টে যাওয়ার তোড়জোড় করছে রাজ্য।

জানা গিয়েছে, দিলীপ ঘোষের নেতৃত্ব কোর টিম ছয় জন মন্ত্রীকে রাজ্যে পাঠাতে অনুরোধ করেছেন। স্মৃতি ইরানি, পীযূষ গোয়েল, নরেন্দ্র তোমার, ধর্মেন্দ্র প্রধান, কিরণ রিজিজু ও প্রহ্লাদ প্যাটেলের মতো প্রথম সারির মন্ত্রীরা আসছেন রাজ্যে। পাশাপাশি সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক কৈলাশ বিজয়বর্গিয়া, অরবিন্দ মেনন ও মুকুল রায়। কৃষি বিল ছাড়াও দলীয় কর্মীদের মৃত্যু নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হয়। এই নিয়ে হাই কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বৈঠকে।