প্রকাশ্যে ধূমপান করে বিতর্কে বিধায়ক

62

ফাঁসিদেওয়া: সাংবাদিক নিগ্রহের অভিযোগ উঠেছিল আগেই। এবার ফাঁসিদেওয়া মাংস প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের ভার্চুয়াল উদ্বোধনে হাজির হয়ে ধূমপান নিষিদ্ধ এলাকায় প্রকাশ্যে ধূমপান করে ফের বিতর্কে মুখে পড়লেন ময়নাগুড়ির বিধায়ক তথা রাজ্য প্রাণিসম্পদ বিকাশ বিভাগের চেয়ারম্যান অনন্তদেব অধিকারী। বিধায়ককে দেখা গিয়েছে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের ক্যাম্পাসে দাঁড়িয়ে এলইডি স্ক্রিনের সামনে ধূমপান করছেন।একইসঙ্গে অনুষ্ঠানে উপস্থিত লোকজনের মাঝখানে ধুমপান করতে করতে কথা বলছেন। বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ব্যপক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি,  অভিজ্ঞমহল বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের ভেতরে যেখানে ধূমপান কিংবা তামাকজাত দ্রব্য নিষিদ্ধ, সেখানে একজন বিধায়ক কীভাবে এমন দায়িত্ব জ্ঞানহীনতার পরিচয় দিতে পারেন তানিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। বিষয়টি যে একেবারেই সঠিক হয়নি অনুষ্ঠানে উপস্থিত স্থানীয় তৃণমূল নেতাও সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন। একইসঙ্গে, এলাকাটি যে ধূমপান নিষিদ্ধ তাও স্বীকার করে নিয়েছেন।এদিনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ফাঁসিদেওয়া ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি তথা সদ্য-প্রাক্তন শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের সদস্য মহম্মদ আইনুল হক বলেন, ‘খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের ভেতরে ধূমপান একেবারেই নিষিদ্ধ। বিধায়ক যদি এই কাজ করে থাকেন, সেটা সত্যি নিন্দনীয়।’ বিজেপির ফাঁসিদেওয়া মণ্ডল সভাপতি অনিল ঘোষ বলেন, ‘তৃণমূল নেতারা এ ধরনের অনৈতিক কাজকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকেন,  এবারে আরেকবার প্রমাণ করে দিলেন বিধায়ক। এটা সত্যি লজ্জাজনক ঘটনা।’ যদিও অনন্তদেব অধিকারি জানিয়েছেন,‘ভিত্তিহীন অভিযোগ, ওখানে আমাদের লোকজন ছিলেন, আমি নির্দিষ্ট এরিয়ার বাইরে ধূমপান করেছি।’