চোখের রোগের কারণ যখন ধূমপান

116

আমরা সবাই জানি, ধূমপান হৃদরোগ এবং লাং ক্যানসারের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু জানেন কি, ধূমপানের কারণে চোখের বিভিন্ন রোগ হয়ে থাকে। ধূমপান বা তামাকের কারণে অক্সিডেটিভ ড্যামেজ এবং রক্তনালি সংকীর্ণ হয়ে থাকে। সিগারেট হোক বা বিড়ি কিংবা তামাক চিবোনো-সবই ক্ষতিকারক। যদি ধূমপান এড়িয়ে চলতে পারেন বা ছেড়ে দিতে পারেন, তাহলে দৃষ্টিশক্তির ক্ষতি বা দৃষ্টিহীনতার ঝুঁকি অনেকটাই কমে। লিখেছেন দিশা আই হসপিটালের কর্নিয়া সার্ভিসেস বিভাগের কনসালট্যান্ট ডাঃ সোহম বসাক

কয়েক বছর ধরে ভারতে মহিলা ধূমপায়ীর সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে। যুবদের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা খুব বেশি, প্রায় ৪৩ শতাংশ। ১৮-২১ বছর বয়স জীবনের এমন এক পর্যায়, যখন বেশিরভাগ যুব ধূমপান শুরু করে। জীবন সম্পর্কে কৌতূহল ও উপভোগ করার আনন্দ এবং সেইসঙ্গে স্ট্রেস ও বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে অনেকেই সিগারেটের নেশায় ঝোঁকে।

- Advertisement -

কিশোর বা তরুণ বয়সে বিশেষত মহিলাদের মধ্যে ধূমপান, নিজে থেকে তেমন উচ্চ ঝুঁকি তৈরি করে না। এটা শুধুমাত্র দীর্ঘসময় ধরে ধূমপানের সংশ্লেষিত প্রভাব বাড়িয়ে তোলে এবং ধূমপায়ীদের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর প্রভাব আরও বেশি হয়। পাশাপাশি ধূমপান যে শুধুমাত্র ধূমপায়ীদের ক্ষতি করে তা নয়, সেকেন্ড-হ্যান্ড স্মোকার্স বিশেষত শিশুদের মধ্যেও এর প্রভাব দেখা গিয়েছে।

ধূমপায়ীদের জন্য উচ্চ ঝুঁকি কী কী

এজ-রিলেটেড ম্যাকিউলার ডিজেনারেশন (এএমডি) : এর অর্থ রেটিনা পাতলা হয়ে যাওয়া ও দুর্বলতা। এটা যাঁরা ধূমপান করেন না, তাঁদের তুলনায় ধূমপায়ীদের  হওয়ার সম্ভাবনা ৩-৪ গুণ বেশি।

গ্রেভস ডিজিজ (থাইরয়েড অপথালমোপ্যাথি) : এটা থাইরয়েড গ্ল্যান্ডের একটা অটোইমিউন ডিজিজ। এক্ষেত্রে ধূমপান প্রধান উল্লেখযোগ্য ঝুঁকির কারণ। আর চিকিত্সার প্রথম পদক্ষেপই হল ধূমপান বন্ধ করা।

ডায়াবিটিস রেটিনোপ্যাথি : ধূমপানের ফলে ডায়াবিটিসের জটিলতা আরও খারাপ হয়ে যায়, যার মধ্যে ডায়াবিটিস রেটিনোপ্যাথি এবং ম্যাকিউলোপ্যাথি রয়েছে।

ড্রাই আই সিনড্রোম : এটা ধূমপায়ীদের মধ্যে অতি পরিচিত। যে সব ধূমপায়ী কনট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করেন, তাঁদের মধ্যে সংক্রমণের ঝুঁকি চারগুণ বেশি।

প্রেগন্যান্সি অ্যান্ড স্মোকিং : গর্ভাবস্থায় ধূমপান প্রিম্যাচিওর বার্থের সঙ্গে জড়িত। এতে রেটিনার অসম্পূর্ণ বিকাশের ঝুঁকি থাকে।

ক্যাটারাক্ট : যাঁরা প্রচণ্ড ধূমপান করেন, তাঁদের তাড়াতাড়ি ছানি পড়ার সম্ভাবনা বেশি।

গ্লুকোমা : বয়স্ক ধূমপায়ীদের চোখে প্রেশার এবং গ্লুকোমা বৃদ্ধির সম্ভাবনা বেশি।

অপটিক নার্ভ প্রবলেমস : ধূমপানের ফলে অপটিক নার্ভে রক্ত সরবরাহ কমে, যা চোখকে মস্তিষ্কের সঙ্গে যুক্ত  রাখে। এতে যে ড্যামেজ হয় তা থেকে ভিসুয়াল ফিল্ড লস, এমনকি অন্ধত্বও হতে পারে।

ইউভাইটিস : অর্থাৎ চোখের ভেতরের স্তরে প্রদাহ, যা ধূমপায়ীদের মধ্যে অতি পরিচিত।

ট্রানজিয়েন্ট ইসকেমিক অ্যাটাক (টিআইএ) : এর কারণে দৃষ্টিশক্তি সাময়িক চলে যেতে পারে, যা কয়েক মিনিট বা কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়। এটা টিআইএ বা মিনি স্ট্রোক নামে বেশি পরিচিত।